টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বিশ্বখাদ্য দিবসে মানিকছড়িতে র‌্যালী ও আলোচনা সভা

আবদুল মান্নান
মানিকছড়ি প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ১৬ অক্টোবর (সিটিজি টাইমস): মানিকছড়িতে বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা কারিতাস খাদ্য নিরাপত্তা প্রকল্প ও কৃষি সম্প্রাসরণ বিভাগের উদ্যোগে বিশ্ব খাদ্য দিবস উদযাপন উপলক্ষে গত ১৬ শুক্রবার উপজেলা অফির্সাস ক্লাবে র‌্যালী শেষে এক আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়েছে।

উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করেন কারিতাসের খাদ্য নিরাপত্তা প্রকল্পের মাঠ কর্মকর্তা মো. সোলায়মান । অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা শামিমুল ইসলাম, সমাজ সেবা কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম চৌধুরী, উপজেলা উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা সুমন গুপ্ত, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা নেকবর আলী খান, অজিত চৌধুরী, মো. শাহাজান, জুয়েল মনি পাল, মনজুর হোসেন,পাপড়ি বড়ুয়া,মো. হেলাল উদ্দিন, খাদ্য পরিদর্শকের প্রতিনিধি রুবি চাকমা ,কারিতাস আই.সি.ডি.পি প্রকল্পের সিডিও মিজ গীতা চাকমা,কারিতাস খাদ্য নিরাপত্তা প্রকল্পের মানিকছড়ি উপজেলার সকল মাঠ সহায়কবৃন্দসহ বিভিন্ন পাড়া হতে আগত উপকারভোগী কৃষক-কৃষাণী উপস্থিত ছিলেন।

উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা সুমন গুপ্ত এর সঞ্চালনায় অনুষ্টিত সভায় “গ্রামীন দারিদ্র বিমোচন ও সামাজিক সুরক্ষায় কৃষি ” দিবসের মূলসুরের ওপর স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাঠ কর্মকর্তা মো. সোলায়মান। তিনি বলেন, ১৯৪৫ সালের ১৬ অক্টোবর বিশ্বে খাদ্য সংরক্ষণে জাতিসংঘে একটি সংগঠন তৈরী করা হয়। বিশ্বের দরিদ্র জনগনের খাদ্য সহযোগিতার জন্য যা পরবর্তীতে ১৬ অক্টোবরকে বিশ্ব খাদ্য দিবস ঘোষনা করে। বাংলাদেশ খাদ্য স্বয়ংসম্পন্ন কিন্তু খাদ্যের সঠিক সংরক্ষণ এবং সুরক্ষার অভাবে আমাদের কৃষক পাপ্য মূল্য পায় না। কৃষি পণ্য উৎপাদনে রাসায়নিক সার ও কীটনাশক পরিহার করে জৈব সার ও সমন্বিত বালাইদমন ব্যবস্থার মাধ্যমে ফসল উৎপাদন করা। বিষমুক্ত সবজি উৎপাদন ও গ্রহণের জন্য উপস্থিত সকলকে আহব্বান জানান।

সভায় বক্তারা বলেন, দরিদ্রতা উন্নয়নের জন্য কৃষকের ভূমিকা অপরিহার্য। কৃষক ভাইদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্যে পাবার লক্ষ্যে প্রতিটি পাড়ায়/এলাকায় ১০জন বা ততোধিক সদস্য মিলে সমিতি গঠন করে দলনেতা নির্বাচন করার পরামর্শ দেন। ফসল উৎপাদনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ফসলকে সুরক্ষা প্রদান করাই খাদ্য নিরাপত্তা । কৃষক ভাইরা যাতে কৃষি পণ্যের ন্যায্যমূল্য পায় সেজন্য ভিন্ন ভিন্ন ফসলের চাষাবাদ করার পরামর্শ রাখেন পাশাপাশি মানিকছড়ি উপজেলায় বিভিন্ন ফুলের চাষাবাদের জন্য উপস্থিত কৃষক – কৃষানি ভাই বোনদের আহব্বান জানান।

সভা শেষে সুবিধাভোগীদের মাঝে শীতকালীন সবজি বীজ মূলা, ফরাসসীম এবং লালশাক এবং গোবর সার সহায়তার জন্য ১৯ হাজার ৮শত টাকা বিতরণ করা হয়।

মতামত