টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বাড়ির পথে ৬ শিশু, দুই দালাল সনাক্ত

ইমাম খাইর, কক্সবাজার ব্যুরো:
মিয়ানমার থেকে ফিরিয়ে আনা ১০৩ বাংলাদেশীর মধ্যে সনাক্ত হওয়া ৬ শিশুকে রেড ক্রিসেন্টের মাধ্যমে বাড়ি পৌঁছে দেয়া হচ্ছে।
১৩ অক্টোবর মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে ঢাকার উদ্দেশ্যে কক্সবাজার ত্যাগ করে। তাদের সাথে রয়েছে রেডক্রিসেন্টের একটি টীম।
এর আগে দুপরে ৬ শিশুকে কক্সবাজার আদালতে হাজির করা হয়। আদালতে এদেরকে রেডক্রিসেন্টের হেফাজতে দেয়।
৬ শিশুর মধ্যে নরসিংদীর দুইজন, জয়পুরহাটের দুইজন এবং বাকী দুইজন চুয়াডাঙ্গা ও বগুড়ার বলে জানান আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম)’র ন্যাশনাল প্রোগাম অফিসার আসিফ মুনীর।
তিনি বলেন, আদালতের নির্দেশ পেয়ে খাবার ও প্রয়োজনীয় সহায়ক সরঞ্জাম দিয়ে রেডক্রিসেন্টের মাধ্যমে বাড়িতে পৌঁছিয়ে দেয়া হচ্ছে।
মঙ্গলবার রাত নয়টার দিকে তাদের নিয়ে রেডক্রিসেন্ট টীম কক্সবাজার ছেড়েছেন।
বাকী ৯৭ জনকে বুধবার সকালে নিজ নিজ গন্তব্যে পৌঁছে দেয়া হবে।
পুলিশ সুপার শ্যামল কুমার নাথ জানান, ফিরিয়ে আনা বাংলাদেশীদের কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে রেখে যাচাই-বাছাই করা হয়। এদের জিজ্ঞাসাবাদে দুই জন দালালের নাম পাওয়া গেছে। যারা মিয়ানমারের কারাগারে বন্দী রয়েছে বলে তারা জানায়।
উল্লেখ্য, গত ২১ মে মিয়ানমারের জলসীমা থেকে সাগরে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার হয় ২০৮ জন এবং ২৯ মে আরো ৭২৭ জন অভিবাসী প্রত্যাশীদের উদ্ধার করে দেশটির নৌ-বাহিনী। উদ্ধার হওয়া এসব অভিবাসন প্রত্যাশীদের মিয়ানমার প্রথম থেকেই বাংলাদেশি নাগরিক বলে দাবি জানিয়ে আসছিল। পরে বাংলাদেশি হিসেবে শনাক্তদের মধ্যে গত ৮ ও ১৯ জুন, ২২ জুলাই এবং ১০ ও ২৫ আগস্ট পাঁচ দফায় ৬২৬ জনকে দেশে ফেরত আনা হয়। আজ ষষ্ঠ দফায় আনা ১০৩ জনসহ এ পর্যন্ত দেশে ফেরত আনা হয়েছে ৭২৯ জনকে।

মতামত