টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রেলওয়ের নিয়োগ পরীক্ষা: ১২৯ পদে ৮২ হাজার পরীক্ষার্থী

paচট্টগ্রাম, ০৯ অক্টোবর (সিটিজি টাইমস): রেলওয়ের ইতিহাসে সর্বোচ্চ সংখ্যক পরীক্ষার্থী ছিল বুকিং সহকারি গ্রেড-২ পদে। এ বুকিং সহকারি ১২৯ পদের বিপরিতে ৮২ হাজার পরীক্ষার্থীর প্রবেশপত্র ইস্যু করা হলেও অংশগ্রহণ করেছেন প্রায় ৭০ হাজারের উপরে। এতে এক পদের বিপরীতে ৫৪৩ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন পরীক্ষায়। পূর্বাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চলে মোট ৮১টি কেন্দ্রেই কড়া নিরাপত্তার মাধ্যমে পুলিশ ও আরএনবির সদস্যদের উপস্থিতিতে এ পরীক্ষা অনুষ্টিত হয়েছে।

আজ শুক্রবার সকাল ১০টায় চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত পরীক্ষা কেন্দ্র পরির্দশন করেন পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) মোহাম্মদ মকবুল আহাম্মদ। তবে রেলের ইতিহাসে এমন উপস্থিতি অন্য কোন পদে বা এতো পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করতে দেখেননি বলে জানান জিএম মকবুল আহাম্মদ। এসময় দায়িত্বশীল একাধিক রেল কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। গত ২০১৪ সালের ১১ নভেম্বরে উক্ত পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দিয়েছিল পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে। 

পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) মোহাম্মদ মকবুল আহাম্মদ বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, রেকর্ড সংখ্যক পরীক্ষার্থীর উপস্থিতিতে বুকিং সহকারি গ্রেড-২ পদে সারা দেশে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রায় ৮০ হাজারের উপরে প্রবেশ পত্র ইস্যু করা হলেও ৮০ শতাংশ পরীক্ষার্থী অংশ নিয়েছেন। কড়া পূর্বাঞ্চলের ১৬টি কেন্দ্রে কোন প্রকার অনিয়মের আশ্রয় নিতে না পারে সেজন্য কড়া নিরাপত্তা ও নজরদারিতে রাখা হয়েছিল। সকালে একাধিক কেন্দ্রও পরির্দশন করেছি। পশ্চিমাঞ্চলের ৬৫টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে চেষ্টা করছি স্বচ্ছতার মাধ্যমে নিয়োগ পরীক্ষা সম্পন্ন করতে। আশা করি আগামীতেও বাকি পরীক্ষাগুলো এমনভাবেই হবে।

রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে রেলের ১৪টি ক্যাটাগড়ির নিয়োগ পরীক্ষা শুরু হয়েছে। এর মধ্যে পূর্বাঞ্চলে ১০ ও পশ্চিমাঞ্চলে ৪ ক্যাটাগড়ি ২ হাজার ৬৮০টি পদের বিপরিতে আবেদন পড়েছে ৩ লাখ ২৮ হাজার ৫’শ ৭৩ জনের। এ নিয়োগের বেশিরভাগই হবে মৌখিক পরীক্ষায়। কিছুদিন আগে ট্রেন কন্ট্রোলার, পোর্টার ও ড্রইং শিক্ষকসহ কয়েকটি ক্যাটাগড়ির মৌখিক ও লিখিত পরীক্ষা শেষ হয়ে ফলাফলও ঘোষনা করা হয়েছে। বাকিগুলোর মধ্যে পরীক্ষা চলমান রয়েছে, খালাসী, হাসপাতাল ক্লিনার সুইপার, ওয়াইটিং রুম বেয়ারার, মশালসি, এসআই, এএসআই, প্রহরি, এমএলএসএস ও ওয়েম্যান।

রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, পূর্বাঞ্চল রেলওয়েতে মোট ১ হাজার ২৮৩টি পদের বিপরীতে আবেদন জমা পড়েছে ৮৫ হাজার ৫৭৩। এর মধ্যে খালাসী ৮৬৫টি পদের জন্য আবেদন পড়েছে ৬৩ হাজার। এভাবে ট্রেন কন্ট্রোলার ৫টি পদে ২ হাজার, ড্রয়িং শিক্ষক ৫টি পদে ১০৩, হাসপাতাল ক্লিনার ৩৩টি পদে ২ হাজার ৮০০, সুইপার ১২১টি পদে ৪ হাজার ৯০০, ওয়াইটিং রুম বেয়ারার ১০টি পদে ১ হাজার ৪০০, মশালসি ৭টি পদে ৫৩০, রেলওয়ে নিরাপওা বাহিনীর এসআই ৫টি পদে ৬৫০, এএসআই ১৩টি পদে ৫ হাজার ২৪০, প্রহরী ১১৯টি পদে ৪ হাজার ৯৫০টি আবেদন জমা পড়েছে। পশ্চিমাঞ্চলের ৪টি বিভাগে ১ হাজার ৩৯৭টি পদের বিপরীতে আবেদন পড়েছে ২ লাখ ৪৩ হাজার। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি আবেদন পড়েছে বুকিং সহকারি পদে। এতে ১৩৭টি পদের বিপরীতে আবেদন পড়েছে ৯০ হাজার। এমএলএসএস ৭৪টি পদে ৩০ হাজার, পোর্টার ৭৩টি পদে ১৮ হাজার ও ওয়েম্যান ১১১৩টি পদে ১ লাখ ৫ হাজার আবেদন পড়েছে।

মতামত