টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

পটিয়ায় বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষ: একই পরিবারের চারজনসহ নিহত ৫

চট্টগ্রাম, ০৯ অক্টোবর (সিটিজি টাইমস): পটিয়া উপজেলার মনসারটেক চৌমুহনী এলাকায় চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে সিএনজি অটোরিকশা ও মিনি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে একই পরিবারের চার সদস্যসহ পাঁচজন নিহত হয়েছেন।  আহত হয়েছেন নারী ও শিশুসহ আরও চারজন।

শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে পটিয়া হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মো. শফিকুল আজম জানান।

নিহতরা হলেন- কাকন সেন(৫), অনিক সেন(৭), রুপনা সেন(২৮), মিল্টন সেন(২৪) ও সিএনজি অটোরিকশা চালক সাইফুল ইসলাম(২৬)।

আহতরা হলেন- কাঞ্চন সেন(৪০), অনামিকা সেন(২৩), অঞ্জন সেন (৩৬) ও আপন সেন(৮)।  তারা সবাই পটিয়া উপজেলার কেলিশহর এলাকার সেনপাড়ার বাসিন্দা।  আহত ও নিহতরা সবাই সিএনজি অটোরিকশার যাত্রী।

এসআই মো. শফিকুল আজম জানান, হতাহতরা সবাই পরস্পরের আত্মীয়।

চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই জহিরুল ইসলাম বলেন, ‘এঘটনায় পটিয়ায় দু’জন মারা গেছে আর চমেক হাসপাতালে তিনজন মারা গেছে। নিহতদের মরদেহ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে এবং আহতদের হাসাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।’

হাইওয়ে পুলিশ পটিয়া ফাঁড়ির ইনচার্জ সার্জেন্ট শফিকুল আজম বলেন, ‘কক্সবাজারমুখি একটি মিনিবাসের সাথে চট্টগ্রাম শহরমুখি একটি সিএনজি অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে মিল্টন সেন ঘটনাস্থলে মারা যায়। এ ঘটনায় আহত অরো আটজনকে উদ্ধার করে উদ্ধার করে পটিয়া উপজেলা হাসপাতালে মারা যায় শিশু কাকন সেন। এরপর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে মারা যান চালক সাইফুল, রুমানা সেন ও আপন সেন।’

সার্জেন্ট শফিক আরো বলেন, ‘পটিয়ার কেলিশহর থেকে শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার উদ্দেশ্যে কাঞ্চন সেন পরিবার নিয়ে বাঁশখালী যাচ্ছিলেন বলে আমাদের জানিয়েছে। এ ঘটনায় চালক পালিয়ে গেলেও বাসটিকে জব্দ করা হয়েছে।

পটিয়া উপজেলার কেলিশহর ইউনিয়নের সদস্য মো. ইসহাক জানান, অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বাঁশখালী আত্মীয়ের বাড়িতে যাচ্ছিলেন তারা।  পথে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন।  দুর্ঘটনায় পাঁচজন নিহত হয়েছে।  নিহত এক শিশুকে বাড়িতে নিয়ে আসা হয়েছে।  বাকিদের বাড়িতে নিয়ে আসার প্রক্রিয়া চলছে।

মো. ইসহাক বর্তমানে নিহতদের বাড়িতে অবস্থান করছেন বলে জানান।

মতামত