টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চবির ২ আবাসিক হল উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

চট্টগ্রাম, ০৮ অক্টোবর (সিটিজি টাইমস):  চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ছাত্রছাত্রীদের দীর্ঘদিনের আবাসন সংকট নিরসনে নবনির্মিত দুটি আবাসিক হল উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে এ হল দুটি নামকরণ করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় তার কার্যালয়ে বসে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে হল দুটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর নামে আবাসিক হল করার তার কন্যা হিসেবে আমি গর্বিত। প্রকৃতিক মনোরম পরিবেশে গড়ে ওঠা এ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ অনেক সুন্দর।’

এদিকে হল উদ্বোধন উপলক্ষে চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন—জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. শামসুল হুদা, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মোস্তাফিজুর রহমান, প্রক্টর আলী আহসান চৌধুরী, সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. মোহাম্মদ আবুল হোসেন, কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের ডিন ড. সেকান্দর চৌধুরী ও চবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. মনসুর আহমেদ।

এদিকে নতুন হল উদ্বোধনের খবরে উচ্ছ্বসিত হয়েছেন চবির শিক্ষার্থীরা। তারা মনে করছেন, এ দুটি হল আবাসন সংকট নিরসনে কিছুটা হলেও কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, ছাত্রদের জন্য নির্মিত প্রায় ৪৫ হাজার বর্গফুটের দোতলা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে আসন রয়েছে ১৮৬টি। হলটিতে রয়েছে পাঠাগার, ক্যান্টিন ও প্রার্থনার জন্য আলাদা কক্ষ। ইনডোর গেমস রুম, কমন রুম, দোকান ও লন্ড্রির ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে।

শেখ হাসিনা হলের মোট আয়তন প্রায় ৯৮ হাজার ৫০০ বর্গফুট। ছাত্রীদের জন্য নির্মিত চারতলা এ হলে থাকছে ৫০০টি আসন। হলটিতে লিফট, দুই হাজার বর্গফুটের পাঠাগার ও কমন রুমেরও ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। রয়েছে ইনডোর গেমসের সুবিধা, ছাত্রীদের জন্য রান্নাঘর ও প্রার্থনা কক্ষ। হল দুটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ২৯ কোটি টাকা।

মতামত