টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

গ্রাহক সেবা সপ্তাহ উদযাপনে ব্রিটিশ কাউন্সিল

IMG_3598চট্টগ্রাম, ০৫ অক্টোবর (সিটিজি টাইমস):৫ অক্টোবর থেকে ৯ অক্টোবর পর্যন্ত বাংলাদেশে গ্রাহক সেবা সপ্তাহ উদযাপন করছে ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশ। যেসব মানুষ প্রতিনিয়ত ব্রিটিশ কাউন্সিলকে সহায়তা দিচ্ছে তাদের অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপই এ গ্রাহক সেবা সপ্তাহ উদযাপন। গ্রাহক সেবা সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতথিি হসিবেে উপস্থিত ছলিনে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির পাশাপাশি বক্তব্য রাখেন ব্রিটিশ কাউন্সিল বাংলাদেশের ডিরেক্টর বারবারা উইকহাম, প্রতিষ্ঠানটির ডিরেক্টর এক্সামিনেশন্স বাংলাদেশ দীপ অধিকারী ও হেড অফ কাস্টমার সার্ভিসেস জুনায়েদ আহমেদ।

৪০টি দেশের বিভিন্ন শিল্প খাতে প্রতিবছর অক্টোবর মাসে এ সেবা সপ্তাহ উদযাপনের মাধ্যমে এটা বৈশ্বিক আকৃতি লাভ করেছে। গ্রাহকদের মানসম্পন্ন সেবা দেয়ার প্রতিশ্রুতিই এসব শিল্পখাতের বিভিন্ন সব সংস্থাকে একত্রিত করে রাখে।

বিশ্বজুড়ে সেবা ও সহায়তা সংক্রান্ত পেশাদারদের গ্রাহক সেবা ক্ষেত্রে ব্রিটিশ কাউন্সিলের ভূমিকা উদযাপনে অংশগ্রহণের সুযোগ দিতেই ব্রিটিশ কাউন্সিল এ সেবা সপ্তাহ উদযাপন করছে। এ গ্রাহক সেবা সপ্তাহের অন্যতম উদ্দেশ্য গ্রাহক সেবা সংক্রান্ত পেশাদারদের উৎসাহিত ও পুরস্কৃত করা, তাদের অবদানের স্বীকৃতি দেয়া, কর্মকর্তাদের মধ্যে গ্রাহক সেবা সম্পর্কে সচেতনতা বাড়ানো এবং গ্রাহক সন্তুষ্টির ক্ষেত্রে ব্রিটিশ কাউন্সিলের প্রতিশ্রুতি সম্পর্কে গ্রাহকদের মনে করিয়ে দেয়া।

এ বছর গ্রাহক সেবা সপ্তাহের থিম নির্ধারণ করা হয়েছে ‘অ্যাট্রাক্টিং, উইনিং অ্যান্ড রিটেইনিং কাস্টমারস’। গ্রাহকদের প্রত্যাশা পূরণের মাধ্যমে ব্রিটিশ কাউন্সিলকে সামনের দিকে এগিয়ে নেয়াই এই থিমের রূপকল্প। গ্রাহক সেবা উন্নত করার জন্য চলমান প্রক্রিয়ার অনুধ্যায়, পর্যালোচনা এবং গ্রাহকদের প্রতিক্রিয়ায় সাড়া দেয়াও এ সপ্তাহ উদযাপনের অন্যতম কারণ। অনলাইন জরিপ ও অন্যান্য মাধ্যমের মাধ্যমেও গ্রাহকদের প্রতিক্রিয়া নেবে ব্রিটিশ কাউন্সিল।

ব্রিটিশ কাউন্সিল তার গ্রাহকদের জন্য আয়োজন করছে প্রতিযোগিতা ও সেমিনার। এছাড়াও থাকছে বিনামূল্যে বিভিন্ন সেবা প্রদান। এর মধ্যে রয়েছে যুক্তরাজ্যে পড়াশোনা ও বসবাস করা নিয়ে পরামর্শ প্রদান অধিবেশন এবং ব্রিটিশ কাউন্সিলের সক্রিয় নাগরিকত্ব ও সামাজিক উদ্যোগ নিয়ে সেমিনার আয়োজন যেখানে অংশগ্রহণকারীরা জানতে পারবে কিভাবে তারা তরুণ নেতৃত্ব বিষয়ক কর্মসূচিতে অংশ নিতে পারবে ও বিশ্বজুড়ে সক্রিয় নাগরিকত্বের নেটওয়ার্কে যুক্ত থাকতে পারবে।

ব্রিটিশ কাউন্সিল একটি ইন্টারঅ্যাক্টিভ আইইএলটিএস কনসালট্যাশন প্রোগ্রাম (আইসিপি) পরিচালনা করবে যেখানে আইইএলটিএস-এর প্রস্তুতি ও নিবন্ধন করতে উৎসাহীদের জন্য অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। অংশগ্রহণকারীদের বিনামূল্যে ইংরেজি শিক্ষা বিষয়ক বিভিন্ন উৎসের সর্বোচ্চ ব্যবহার সম্পর্কে বোঝানো ও তাদের

বিনামূল্যে ইংরেজি শেখার বিভিন্ন উপকরণের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়ার জন্য ব্রিটিশ কাউন্সিল একটি কর্মশালাও আয়োজন করবে। যা শিক্ষার্থীদের আইইএলটিএস নিয়ে প্রস্তুতি নিতে সাহায্য করবে।

ব্রিটিশ কাউন্সিল ৫ অক্টোবর থেকে ৮ অক্টোবর বিকেল ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত এর দূরবর্তী গ্রাহকদের জন্য একটি অনলাইন চ্যাট সেশন পরিচালনা করবে। এছাড়াও, ৮ অক্টোবর সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যনÍ ব্রিটিশ কাউন্সিল পরিচালিত আরেকটি চ্যাট সেশনে গ্রাহকরা যুক্তরাজ্যে বসবাস ও পড়াশোনা নিয়ে প্রশ্ন করতে পারবে।

পেশাদারি পদ্ধতিতে ও সঠিক সময়ে ব্রিটিশ কাউন্সিলের গ্রাহক সেবা দল গ্রাহক পণ্য ও সেবা সংক্রান্ত সকল প্রশ্নের উত্তর দিবে। বাংলাদেশে ব্রিটিশ কাউন্সিলের সেবা সংক্রান্ত সকল বিষয় নিয়ে বাংলাদেশের ব্রিটিশ কাউন্সিলের গ্রাহক সেবা দল সম্পূর্ণভাবে দায়বদ্ধ। ব্রিটিশ কাউন্সিলের বাংলাদেশে গ্রাহক সেবার মূল উদ্দেশ্য যোগাযোগের সকল মাধ্যম যেমন- ফোন, ই-মেইল ও সামাজিক যোগাযোগের অন্যান্য মাধ্যমের মাধ্যমে গ্রাহকদের সহজে সেবা পাওয়া নিশ্চিত করা। -সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত