টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

আমিরাবাদ গোলামবারী হাইস্কুলের পরিচালনা কমিটির নির্বাচনে জাল ভোটের ছড়াছড়ি

আবদুল আউয়াল জনি
লোহাগাড়া-সাতকানিয়া প্রতিনিধি

SAMচট্টগ্রাম, ২৯ সেপ্টেম্বর (সিটিজি টাইমস): দক্ষিন চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্টান আমিরাবাদ গোলামবারী হাইস্কুলের নির্বাচন অনুষ্টিত হয় ২ ৯শে সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার পুলিশের সতর্ক প্রহরা ও শিক্ষার্থীদের অভিভাবক ভোটারদের সতস্ফুর্ত উপস্থিতির মধ্যে ভোট গ্রহন সম্পন্ন হয়েছে। তবে কিছুটা গোলযোগের পাশাপাশি ছিল জালভোটের ছড়াছড়ি।

ছাত্রী রুবাইদা আফরিনের অভিভাবক ২নং বুথের ৫১৯নং ভোটার ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সাবেক সদস্য একরাম উল্লাহ নামে এক ভোটার ভোট দিতে গিয়ে দেখেন তার ভোটটি কে বা কারা দিয়ে ফেলেছে, ৮ম শ্রেনীর ছাত্র মুজাহিদুল ইসলামের অভিভাবক ৬৫১ নং ভোটার রাজিয়া বেগম সহ অনেক মহিলা অভিভাবক ভোট দিতে পারেননি এছাড়াও জালভোট প্রদানকারী এক মহিলাকে হাতেনাতে আটক করে প্রিসাইডিং অফিসারের কক্ষে ধরে নিয়ে আসলে উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

ব্যালট নং-০৪ এর প্রার্থী সরওয়ার আক্তারকে ভোটারের সাথে বুথে প্রবেশ করে ব্যালটে সিল মারার প্রচেষ্টা করতে দেখা যায়, কেন এমন করছেন তার কাছে জানতে চাইলে তার সাথে থাকা কয়েকজন উশৃঙ্খল যুবক সাংবাদিকদের দিকে তেড়ে আসে।

এখন প্রশ্ন হল বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির নির্বাচনে ও যদি পেশী শক্তির ব্যাবহার সহ জাল ভোটের ছড়াছড়ি হয় এবং যদি তারা নির্বাচিত হন তাহলে তাদের কাছ থেকে কতটুকু সেবা আশা করতে পারে বিদ্যালয় ও বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা?

জাল ভোট ও ভোট দিতে না পারা অভিভাবকদের অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও প্রিসাইডিং অফিসার নুরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন কেউ যাতে জালভোট দিতে না পারে তার জন্য সকল পোলিং এজেন্টকে সতর্ক ভাবে কাজ করার জন্য বলেছি জাল ভোটারদের ধরিয়ে দেওয়া হচ্ছে পোলিং এজেন্টদের কাজ তবে এজেন্টদের ফাকি দিয়ে কিছু জালভোট পড়েছে। নির্বাচন কি সুষ্ট হয়েছে? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন নির্বাচন সুষ্ট হয়েছে অনেকেইতো ভোট দিতে পারেনি তাহলে কিভাবে সুষ্ট হল? জানতে চাইলে তিনি উত্তর দেননি ।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত