টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

হঠাৎ করে ইউরোপ কেন শরণার্থীবিমুখ

manbচট্টগ্রাম, ২০ সেপ্টেম্বর (সিটিজি টাইমস): মধ্যপ্রাচ্যের শরণার্থীদের গ্রহণের ব্যাপারে গত কয়েক দিন ধরেই দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছে ইউরোপ। বিতর্ক চলছে দেশগুলোর রাজনীতিবিদদের মধ্যে।

এরই মধ্যে হাঙ্গেরি, ক্রোয়েশিয়া, স্লোভেনিয়ার মতো দেশগুলোতে শরণার্থীদের আটকে দেয়ার এবং পাশের দেশে ঠেলে দেয়ার প্রবণতা চোখে পড়েছে।

এর কারণ কী?

যুক্তরাজ্যে সোয়্যাস ইউনিভার্সিটি অব লন্ডনের অর্থনীতির অধ্যাপক ড. মুশতাক খান এর পেছনে দুটি কারণকে উল্লেখ করছেন। তিনি বলছেন, শরণার্থীরা মূলত যেসব দেশ দিয়ে পার হয়ে পশ্চিম ইউরোপে আসতে চাইছে সেগুলো ইউরোপের নতুন দেশ, যেমন হাঙ্গেরি ও ক্রোয়েশিয়ার মতো দেশ। তাদের এশিয়া-আফ্রিকার দেশের সাথে সেরকম কোনো সম্পর্ক ছিল না, তাদের কোনো ঔপনিবেশিক ইতিহাস নেই, ওই সব দেশে এশিয়া-আফ্রিকার লোকেরা থাকে না।

মুশতাক খান বলেন, “এই পরিমাণ লোক যখন এসব দেশ দিয়ে পার হওয়ার চেষ্টা করছে, এসব দেশে তখন এক ধরনের খারাপ প্রতিক্রিয়া তৈরি হচ্ছে। এবং এই শরণার্থীরা বেশির ভাগ মুসলমান, এশিয়ান। তাদের বিরুদ্ধে এক ধরনের বর্ণবাদী প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।”

অন্যদিকে পশ্চিম ইউরোপের দেশগুলোর ঔপনিবেশিক ইতিহাস রয়েছে উল্লেখ করে ড. খান বলছেন, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য বা জার্মানির মতো দেশ এশিয়ায়, আফ্রিকায় শাসন করেছে, ফলে দেশগুলোতে এই শরণার্থী নিয়ে খুব একটা বিরূপ প্রতিক্রিয়া হয়নি। বরং প্রথম দিকে এই দেশগুলোতে এক ধরনের সহানুভূতিশীল আচরণ দেখা গেছে।

ড. খান বলেন, “এখন লাখ লাখ মানুষ শরণার্থী হয়ে ইউরোপে প্রবেশ করতে চাইছে। ফলে ফ্রান্স ও জার্মানির মতো দেশকেও এখন আতঙ্কিত হতে দেখা যাচ্ছে। কারণ চল্লিশ-পঞ্চাশ লাখ লোক যদি এখন ইউরোপে আসে তাহলে পশ্চিম ইউরোপের বড় দেশগুলোও এত লোককে বহন করতে পারবে না।”

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত