টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

যৌতুক: স্বামীর নির্যাতনের শিকার নববধূ

এস.এম. ইউসুফ উদ্দিন
রাউজান প্রতিনিধি

Raozan-pic-nijjatonচট্টগ্রাম, ১৪ সেপ্টেম্বর (সিটিজি টাইমস):   রাউজানের দরিদ্র পরিবারে এক কন্যা রাঙ্গুনিয়ায় বিয়ে হওয়ার একদিন পরই যৌতুকের লোভে স্বামী ও শ্বশুর পক্ষের লোকজনের নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় মেয়েটির বাপের লোকজন ওই নববধূকে স্বামীর পরিবার থেকে উদ্ধার করতে গিয়েও হামলার শিকার হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই ঘটনায় গতকাল সোমবার চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত, চট্টগ্রাম’এ ৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সি.আর মামলা নং-২১৫/১৫, তাং-১৪-০৯-১৫ইং। আদালত বিষয়টি আমলে নিয়ে ঘটনাটি তদন্তের জন্যে রাঙ্গুনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে তদন্তের জন্যে নির্দেশ দিয়েছে।

মামলার বিবরণে অভিযোগ করা হয় উভয় পরিবারের দেখাদেখিতে ও আনুষ্ঠানিকভাবে গত ৯ সেপ্টেম্বর নোয়াপাড়া ইউনিয়নের পটিয়াপাড়া এলাকার ছৈয়দুল হকের মেয়ে শিরিন আক্তারের সাথে ইসলামী শরিহা মোতাবেক দেনমোহরে বিয়ে হয় রাঙ্গুনিয়া পৌরসভা এলাকার সৈয়দ বাড়ির মো. মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে আবদুর রহমানের সাথে। মামলার বাদিনী নববধূ শিরিন আক্তারের খালা ছখিনা বেগম মামলায় অভিযোগ করেন বিয়ের একদিন পর অর্থ্যাৎ ১০ সেপ্টেম্বর নববধূ শিরিন আক্তারকে যৌতুকের দুই লাখ টাকার জন্যে শারিরিক নির্যাতন করে। এরপর বিষয়টি শিরিন আক্তার তার বাবার বাড়ির লোকজনকে জানালে ১২ সেপ্টেম্বর বিকেল অনুমান চারটায় শিরিন আক্তারের বড় ভাই ইমরান, চাচী জান্নাতুল ফেরদৌস ও কয়েকজন শিরিন আক্তারের শ্বশুর বাড়িতে যান। এসময় স্বামী আবদুর রহমান শ্বশুর বাড়ির লোকজনকে দেখে নববধূ শিরিন আক্তারকে গলা চেপে ধরে। এক পর্যায়ে স্বামী পরিবারের অন্যান্যরা (মামলায় উল্লেখিত আসামীরা) শিরিন আক্তারের চাচী জান্নাতুল ফেরদৌসকে কিল, ঘুষি মেরে আহত করে। পরবর্তিতে নববধূ শিরিন আক্তারকে শ্বশুর বাড়ি থেকে উদ্ধার করে বাপের বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। গতকাল সোমবার ওই ঘটনায় নির্যাতিত নববধূর খালা ছখিনা বেগম বাদী হয়ে স্বামী আবদুর রহমান এবং ওই পরিবারের মো. সৈয়দ, মো. দিদার, মোস্তাফিজুর রহমান, দিদার নামের পাঁচ জনকে আসামী করে আদালতে মামলা দায়ের করার পর আদালত বিষয়টি তদন্তের জন্যে রাঙ্গুনিয়া থানার ওসিকে তদন্তের জন্যে নির্দেশ দেন।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত