টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রাউজানে বিদ্যুৎহীন শত শত পরিবার

এস.এম. ইউসুফ উদ্দিন
রাউজান প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ০৯ সেপ্টেম্বর  (সিটিজি টাইমস) : চট্টগ্রাম পল্লী বিদ্যুত সমিতি-২ এর কর্মকর্তা কর্মচারিদের গাফলতিতে বিদ্যুৎ বিহীন হয়ে পড়েছে শত শত পরিবার।  বুধবার রাউজানের ১০নং পূর্ব গুজরা ইউনিয়নের বড়ঠাকুর পাড়া এলাকায় বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমারের সামান্য ত্রুটির কারনে কয়েক শতাধিক পরিবার এই বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে এই ভোগান্তিতে পড়ে।

জানাযায়, বুধবার ভোর ৪টার সময় স্থানীয় একটি ট্রান্সফরমারে ত্রুটি দেখা দিলে সকালেই বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন এলাকার একাধিক লোক অভিযোগ প্রদান করেন। পরবর্তীতে পল্লীবিদ্যুতের নোয়াপাড়া জোনের কর্মচারিরা দুপুর ১২টার সময় গিয়ে লাইন মেরামত করে লাইন সংযোগ প্রদান করার সাথে সাথেই পুনরায় বিদ্যুৎ চলে যায়। এতে তখনই মেরামতকারী পল্লীবিদুতের লোকজন জেনেও আর মেরামত না করে অফিসে চলে আসে। পরবর্তীতে স্থানীয়রা সাথে সাথে পুনরায় পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের অভিযোগ কেন্দ্রেও বার বার অভিযোগ করেন এলাকাবাসি। তার পরও কর্নপাত হয়নি এলাকার পল্লীবিদ্যুত সমিতির লোকজনের মাঝে।

পল্লবিদ্যুত সমিতির এমন আচরনে বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠে এলাকার লোকজন। দিনে ও রাতে বিদ্যুত না থাকায় প্রচন্ড গরমে শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার ব্যাঘাতের পাশাপাশি ফ্রিজে রাখা অনেকের পচনশীল খাদ্য নষ্ট হয়ে যায়।

এ নিয়ে স্থানীয় বাসিন্ধা ও রাউজান প্রেস ক্লাব সভাপতি তৈয়ব চৌধুরী সন্ধ্যার সময় সমিতিরি জিএম আবু বক্কর সিদ্দিককে বিষয়টি অবগত করলে তিনিও রাত ৮টার সময় পর্যন্ত কোন সুরাহা করতে না পারায় বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন এলাকার শত শত বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন পরিবারের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।

বিষয়টি নিয়ে পল্লী বিদ্যুতের জিএম আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, আমি অভিযোগ শুনা মাত্রই নোয়াপাড়া জোনাল অফিসকে সন্ধ্যা ৭টার সময় সুরাহা করতে বলেছি। তবে আজ (বুধবার) এটি করতে পারছে না।

বিষয়টি নিয়ে বিদ্যুতের আওতাধীন নোয়াপাড়া জোনাল অফিসের এজিএম মুমিল ইসলাম জানান, শুনেছি ট্রান্সফরমারের একটি বুশ চলে গেছে। যেটি পল্লী বিদ্যুতের রাউজান সদর অফিস থেকে এনে লাগাতে হবে।

মতামত