টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

অষ্টম পে-স্কেল অনুমোদন: নববর্ষ ভাতা চালু, থাকছে না টাইমস্কেল, সিলেকশন গ্রেড

চট্টগ্রাম, ০৭ সেপ্টেম্বর  (সিটিজি টাইমস) : সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীদের জন্য জাতীয় অষ্টম পে-স্কেলের অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। টাইম স্কেল ও সিলেকশেন গ্রেড বিলুপ্ত করে নতুন এই পে স্কেল অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে নতুন পে-স্কেল অনুমোদন দেওয়া হয়।

গত ১ জুলাই থেকে এটি কার্যকর হিসেবে ধরা হবে। এর আগে গতকাল রবিবার দিনভর কঠোর গোপনীয়তার মধ্য দিয়ে অর্থমন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন বিভাগ পে স্কেল-এর আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে। মন্ত্রণালয় থেকে প্রজ্ঞাপন জারির পর এই বেতন কাঠামো কার্যকর হবে। নতুন স্কেল বাস্তবায়নে চলতি অর্থবছরে বাড়তি খরচ হবে হবে ১৫ হাজার ৯০৪ কোটি ২৪ লাখ টাকা। আগামী অর্থবছরে অতিরিক্ত লাগবে ২৩ হাজার ৮২৮ কোটি ৫৭ লাখ টাকা।

এবারের বেতন কাঠামোয় গ্রেড ২০টি থাকবে জানিয়ে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররাফ হোসাইন ভূঁইঞা বলেন, গ্রেড ২০টিই থাকবে। সর্বোচ্চ গ্রেডে বেতন ৭৮ হাজার টাকা (নির্ধারিত)।সর্বনিম্ন বেতন হবে ৮২৫০ টাকা। বাড়ি ভাড়া ছাড়া আর কোনও ভাতাই শতাংশ হিসেবে থাকছে না, সবই নির্ধারিত হারে থাকবে।

২০ থেকে ৬ষ্ঠ গ্রেড পর্যন্ত বেতন ৫ শতাংশ হারে এবং ৩য় ও ৪র্থ ও বাকিগুলোর বেতন চক্রবৃদ্ধি হারে বাড়বে। অর্থাৎ একজনের একজনের মূল বেতন যদি হয় ১০ হাজার টাকা হয় তবে প্রথম বছরে বেড়ে তা হবে ১০ হাজার ৫০০ টাকা। এর পরের বছর ওই ১০ হাজার ৫০০ টাকার ওপর বেতন বাড়বে।

গ্রেড সপ্তম বেতন স্কেল (টাকা) অষ্টম বেতন স্কেল (টাকা) বেতন বৃদ্ধি (টাকা ও শতকরা)
মন্ত্রিপরিষদ সচিব/মুখ্য সচিব ৪৫,০০০ ৮৬,০০০ ৪১,০০০ (৯১.১১%)
গ্রেড-১ ৪০,০০০ ৭৮,০০০ ৩৮,০০০ (৯৫%)
গ্রেড-২ ৩৩,৫০০ ৬৬,০০০ ৩২,৫০০ (৯৭.০১%)
গ্রেড-৩ ২৯,০০০ ৫৬,৫০০ ২৭,৫০০ (৯৪.৮২%)
গ্রেড-৪ ২৫,৭৫০ ৫০,০০০ ২৪,২৫০ (৯৪.১৭%)
গ্রেড-৫ ২২,২৫০ ৪৩,০০০ ২০,৭৫০ (৯৩.২৫%)
গ্রেড-৬ ১৮,৫০০ ৩৫,৫০০ ১৭,০০০ (৯১.৮৯%)
গ্রেড-৭ ১৫,০০০ ২৯,০০০ ১৪,০০০ (৯৩.৩৩%)
গ্রেড-৮ ১২,০০০ ২৩,০০০ ১১,০০০ (৯১.৬৬%)
গ্রেড-৯ ১১,০০০ ২২,০০০ ১১,০০০ (১০০%)
গ্রেড-১০ ৮,০০০ ১৬,০০০ ৮,০০০ (১০০%)
গ্রেড-১১ ৬,৪০০ ১২,৫০০ ৬,১০০ (৯৫.৩১%)
গ্রেড-১২ ৫,৯০০ ১১,৩০০ ৫,৪০০ (৯১.৫২%)
গ্রেড-১৩ ৫,৫০০ ১১,০০০ ৫,৫০০ (১০০%)
গ্রেড-১৪ ৫,২০০ ১০,২০০ ৫,০০০ (৯৬.১৫%)
গ্রেড-১৫ ৪,৯০০ ৯,৭০০ ৪,৮০০ (৯৭.৯৫%)
গ্রেড-১৬ ৪,৭০০ ৯,৩০০ ৪,৬০০ (৯৭.৮৭%)
গ্রেড-১৭ ৪,৫০০ ৯,০০০ ৪,৫০০ (১০০%)
গ্রেড-১৮ ৪,৪০০ ৮,৮০০ ৪,৪০০ (১০০%)
গ্রেড-১৯ ৪,২৫০ ৮,৫০০ ৪,২৫০ (১০০%)
গ্রেড-২০ ৪,১০০ ৮,২৫০ ৪,১৫০ (১০১.২১%)

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এ পদ্ধতিতে লাভবান হবেন বলে জানান সচিব। তবে সিলেকশন গ্রেড অব্যাহত থাকবে না জানিয়ে সচিব বলেন, বেতন সবার জন্য বাড়ছে। কাজেই কিছু পদ বা প্রতিষ্ঠানের জন্য সুবিধা দেওয়ার চেয়ে সবার সুবিধা দেওয়াই যৌক্তিক।

এবার থেকে বাংলা নববর্ষ ভাতা শুরু হচ্ছে জানিয়ে সচিব বলেন, সবাই ধর্মভিত্তিক ভাতা পায়। কিন্তু সবার জন্য এবার থেকে বাংলা নববর্ষ ভাতা চালু করা হবে।

এখন থেকে সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে কোনও শ্রেণিবিভাগ থাকবে না উল্লেখ করে সচিব বলেন, এটি একটি যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত। এখন থেকে এটি বিলুপ্ত। প্রথম শ্রেণি বা তৃতীয় শ্রেণি বলে কিছু থাকবে না। সরকারি কর্মচারীরা এখন থেকে গ্রেড অনুযায়ী পরিচিত হবেন। তাদের জন্য এটি হবে মনস্তাত্ত্বিক সাপোর্ট।

এ ছাড়া ক্যাডার বা নন-ক্যাডার বিষয়েও সিদ্ধান্ত হবে বলে জানান তিনি। পাশাপাশি অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারীরা এখন থেকে ৯০ শতাংশ হারে পেনশন পাবেন।

এ ছাড়া এমপিওভুক্তদের জন্যও নতুন পে-স্কেল কার্যকর হবে উল্লেখ করে তা পর্যালোচনার কথা জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব। তিনি বলেন, কমিটির মাধ্যমে এর পর্যালোচনা হবে। তবে এমপিওভুক্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নতুন স্কেলে বেতন পাবেন, পাশাপাশি এর পর্যালোচনাও চলবে।

সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা নতুন স্কেল অনুযায়ী বেতন পেলেও তাদের ক্ষেত্রে বেতন বৈষম্য দূরীকরণ বিষয়ক মন্ত্রিসভা কমিটি কিছু বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে। তার আগ পর্যন্ত তারা ‘করেসপন্ডিং স্কেলে’ বেতন পাবে।

এই পে-স্কেলের বাস্তবায়ন ১ জুলাই-২০১৫ থেকে ধরা হবে জানিয়ে অর্থ-বিভাগে এখন এর খুঁটিনাটি বিষয়গুলো পর্যালোচনা হবে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

ঘোষিত পে-স্কেল অনুযায়ী সর্বোচ্চ গ্রেড প্রথম গ্রেডের বেতন ৭৮ হাজার টাকা (ফিক্সড), ২য় গ্রেড ৬৬ হাজার টাকা থেকে শুরু হবে। এ ছাড়া ৩য় গ্রেড ৫৬ হাজার ৫০০ টাকা থেকে, ৪র্থ ৫০ হাজার টাকা থেকে, ৫ম ৪৩ হাজার টাকা থেকে, ৬ষ্ঠ ৩৫ হাজার ৫০০ টাকা থেকে, ৭ম ২৯ হাজার টাকা থেকে, ৮ম ২৩ হাজার টাকা থেকে, ৯ম ২২ হাজার টাকা থেকে, ১০ম ১৬ হাজার টাকা থেকে, ১১তম ১২ হাজার ৫০০ টাকা থেকে, ১২তম ১১ হাজার ৩০০ টাকা থেকে, ১৩ তম ১১ হাজার টাকা থেকে, ১৪তম ১০ হাজার ২০০ টাকা থেকে, ১৫ তম ৯ হাজার ৭০০ টাকা থেকে, ১৬তম ৯ হাজার ৩০০ টাকা থেকে, ১৭তম ৯ হাজার টাকা থেকে, ১৮তম ৮ হাজার ৮০০ টাকা থেকে, ১৯তম ৮ হাজার ৫০০ টাকা থেকে এবং ২০তম বা সর্বনিম্ন গ্রেডের বেতন ৮ হাজার ২৫০ টাকা থেকে শুরু হবে।

নতুন পে স্কেলে তিন বাহিনীর প্রধান (সেনা, নৌ ও বিমান) সমান বেতন পাবেন (৮৬ হাজার টাকা, নির্ধারিত)। এ ছাড়া সেনাবাহিনীর লেফট্যানান্ট জেনারেলরা বেতন পাবেন ৮২ হাজার টাকা (নির্ধারিত)।

সশস্ত্র বাহিনীতে সর্বশেষ পদ হলো সৈনিক। কিন্তু তারা সর্বনিম্ন গ্রেডে বেতন পাবেন না। যারা সৈনিক নন এবং সামরিক দায়িত্বে সংশ্লিষ্ট নন, তারা সর্বনিম্ন গ্রেডে বেতন পাবেন।

ঘোষিত স্কেলের মূল বেতন ১ জুলাই-২০১৫ থেকে এবং ভাতা ১ জুলাই-২০১৬ থেকে কার্যকর হবে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

মতামত