টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

কক্সবাজারে টমটম চালক খুনের ঘটনায় ৪ আসামী গ্রেফতার

Arrest
ইমাম খাইর, কক্সবাজার ব্যুরো:
কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের ডায়াবেটিক পয়েন্টে মোজাফ্ফর আহমদ নামের টমটম চালক খুনের ঘটনায় জড়িত ৪ আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
৩ সেপ্টেম্বর রাতে আব্দুল হামিদকে রামু থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর তাকে নিয়ে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ঘটনায় জড়িত অন্যান্যদের গ্রেপ্তার করা হয়।
তারা হলো- রামু রশিদনগর পূর্ব খাদেমের পাড়া এলাকার মৃত নুরুল হকের ছেলে মো. আব্দুল হামিদ (২৩), চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী মেদাকচ্ছপিয়া শান্তিবাজার এলাকার হাবিবুর রহমানের ছেলে মো. তৌহিদ (২০), চকরিয়া বদরখালী সাতঘরিয়াপাড়া এলাকার মোক্তার আহমদের ছেলে মামুনুর রশিদ মামুন (২২) ও রশিদনগর পূর্ব খাদেমের পাড়া এলাকার আব্দুস সালামের ছেলে জসিম উদ্দিন (২১)।
শুক্রবার রাতে তাদের কক্সবাজার সদর মডেল থানা প্রাঙ্গনে সংবাদকর্মীদের সামনে হাজির করা হয়।
এ সময় তারা জানায়, চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকান্ডে ৫ জন জড়িত ছিল। পূর্ব পরিকল্পিত ভাবেই টমটম ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে চালককে হত্যা করা হয়।
এছাড়া খুনের ঘটনায় জড়িত আরও একজনের তথ্য পেয়েছে পুলিশ।
তাকে ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও কক্সবাজার সদর থানার ওসি (তদন্ত) বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী।
তিনি জানান, গত ১৮ আগষ্ট রাত সাড়ে ১১ টার দিকে শহরের ডায়াবেটিস পয়েন্ট এলাকা থেকে টমটম চালক মোজাফ্ফর আহমদের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
পরে এই ঘটনায় ৫ জনের নাম উল্লেখ করে সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছিল। এর পর পুলিশ কৌশলে ঘটনায় জড়িত একজনকে আটক করে।
তার দেয়া স্বীকারোক্তি মতে ঘটনায় জড়িত আরও তিনজনকে আটক করা হয়েছে। এসময় ছিনতাইকৃত টমটমের বিভিন্ন সরঞ্জামও জব্দ করা হয়।
নিহত চারক মোজাফ্ফর আহমদ রামু উপজেলার খুনিয়াপালং ইউনিয়নের দারিয়ারদিঘী এলাকার জহির আহমদের ছেলে।
তদন্তকারী কর্মকর্তা আরো জানান, টমটম চালক মোজাফ্ফরকে জবাই করে হত্যার ঘটনা তারা স্বীকার করেছেন। টমটম ছিনতাইয়ের উদ্দ্যোশে মোজাফ্ফরকে তারা গলাকেটে হত্যা করে। দীর্ঘদিন ধরে তারা সংবদ্ধ হয়ে টমটম ছিনতাই করে যাচ্ছে বলেও উল্লেখ করা হয়। এমনকি আটককৃতরা পেশাদার টমটম ছিনতাইকারী বলেও জানান ওই কর্মকর্তা।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত