টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রামে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত অর্ধশত মামলার আসামি

banচট্টগ্রাম, ৫ সেপ্টেম্বর  (সিটিজি টাইমস) :: চট্টগ্রামের চান্দগাঁও থানার শমসেরপাড়া এলাকায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে আরমান হাজারী নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন, যিনি সন্ত্রাসী বলে পুলিশের দাবি।

শনিবার ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আরমানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ৩০টির বেশি মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

চাঁন্দগাও থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ইকবাল হোসেন জানান, আরমান একজন সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে ওই থানায় হত্যা, অস্ত্র, চাঁদাবাজিসহ ২১টি মামলা রয়েছে। নগরীর অন্যান্য থানায় তার বিরুদ্ধে আরো ১০-১২টি মামলা আছে।

চান্দগাঁও থানার এসআই মো. নাছির  জানিয়েছে, শনিবার ভোরে শমসের পাড়ার চান মিয়া হাউজিং সোসাইটিতে আরমান ‘বন্দুকযুদ্ধে’ গুলিবিদ্ধ হন।

সাড়ে ৫টার দিকে হাসপাতালে নেওয়ার দেড় ঘণ্টা পর আরমানের মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ফাঁড়ির এএসআই পঙ্কজ বড়ুয়া জানিয়েছেন।

এসআই নাছির বলেন, “চান মিয়া হাউজিং সোসাইটিতে সঙ্গীদের নিয়ে আরমানের ডাকাতির প্রস্তুতি নেওয়ার খবর শুনে পুলিশ সেখানে অভিযানে যায়। তখন পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়া হলে পুলিশ সদস্যরাও পাল্টা গুলি চালায়।”

দুই পক্ষের গোলাগুলির পর সন্ত্রাসীরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থলে আরমানকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায় বলে এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান। এরপর তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ঘটনাস্থল থেকে দীপু ও তুফান নামে আরমানের দুই সহযোগীকে গ্রেপ্তার এবং দেশে তৈরি বেশ কিছু অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান এসআই নাছির।

তিনি বলেন, আরমানের বিরুদ্ধে ডাকাতি, চাঁদাবাজির অভিযোগে নগরীর বিভিন্ন থানায় ৫০টি মামলা রয়েছে। এর ২১টিতে তার বিরুদ্ধে আদালতের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ছিল।

স্থানীয়রা বলছেন, চান্দগাঁও এলাকায় চাঁদাবাজদের একটি দল নিয়ন্ত্রণ করতেন আরমান। তাকে চাঁদা না দিয়ে সেখানে কোনো কাজ করাই মুশকিল ছিল।

মতামত