টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রাউজানে আবারো বন্যা : চরম হতাশায় কৃষক

এস.এম. ইউসুফ উদ্দিন
রাউজান প্রতিনিধি 

Raozan-news-picচট্টগ্রাম, ৩ সেপ্টেম্বর  (সিটিজি টাইমস) : চট্টগ্রামের রাউজানে আবারো বন্যায় চরম হতাশায় কৃষক। গত এক সপ্তাহের প্রবল বর্ষণ ও জলোচ্ছাসে উপজেলার বেশ কয়েক অঞ্চল পানির নিচে নিমজ্জিত হয়েছে। এতে তলিয়ে গেছে আমনের চাষাবাদ। ৫ম বারের মত বন্যায় দিশেহারা উপজেলার হাজার হাজার মানুষ। এ বন্যায় শতাধিকের উপরে সড়কের ক্ষতিসাধিত হয়। এছাড়াও বেশ কিছু অঞ্চলে সড়কের ভাঙ্গণের কবলে পরে যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। তবে হালদা ও কর্ণফুলি পাড়ের মানুষের ভোগান্তি চরম পর্যায়ে। কৃষিজীবিরা বলেছেন এই পানি কয়েকদিন স্থায়ী হলে তাদের আবাদী জমির চারা নষ্ট হয়ে যাবে। এ মৌসুমে আর কোনো কৃষকের আমন চাষাবাদ হবে না। তবে গতকাল বৃহষ্পতিবার থেকে পানি নামতে শুরু করলেও কৃষকের বীজ তলা নষ্ট হয়ে যায়। এতে পুনরায় বীজ তলা করা থেকে অনেক কৃষক আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছে।

পশ্চিম গুজরা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান লায়ন সাহাবুদ্দিন আরিফ বলেন, হালদা পাড়ের ভাঙ্গণ তীব্র হয়ে থেকে তীব্রতর হচ্ছে। এতে পাড়ের হাজার হাজার মানুষ পানি বন্দি হয়ে পড়ে। বিশেষ করে এলাকার মানুষের চাষাবাদ একেবারেই ধ্বংস হয়ে যায়।

উরকিরচর জনতা সংঘের অর্থ সম্পাদক সাইফুদ্দিন আত্তারি ও সাবেক সভাপতি নুর নবী ফেসবুকে পানি কবলিত দুর্দশার চিত্র তুলে ধরে বলেন, ইউনিয়নের মানুষ পানি বন্দি হয়ে পড়েছে। তাছাড়া হালদার পানি বিপদ সীমাদিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় ৩ ঘন্টা ইউনিয়নের মানুর্ষে যোগাযোগ বন্ধ ছিল।
এদিকে গত প্রায় এক মাসে টানা বৃষ্টিতে সৃষ্ট বন্যার পানির চাপে রাউজানের কৃষিজীবিরা বীজতলা হারিয়ে সর্বশান্ত— হয়েছিল। ওই সময়ের ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের মধ্যে যারা ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টায় আবার দুরদুরান্ত থেকে ধান চারা সংগ্রহ করে জমিতে আমন চারা রোপন করেছে তারা আবারও শংকার মধ্যে পড়েছে।

টানা বর্ষণে সৃষ্ট পানিবদ্ধতায় আবার আটকে পড়েছে কৃষকদের ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন। ইতিমধ্যে আবাদী জমির উপর কোমর পানি থৈয় থৈয় করছে।
স্থানীয়রা জানিয়েছে বৃষ্টির পানির সাথে যোগ হচ্ছে পাহাড়ী ঢলের পানি।

উপজেলার উত্তার পূর্বাংশের পাহাড় থেকে নেমে আসা পানি সর্তা, ডাবুয়া, কাঁশখালী, বেরুলিয়া, রাউজান খাল হয়ে তীব্র বেগে নামছে। এই পানির চাপ সহ্য করতে না পেরে ওসব খালের বিভিন্নস্থানে পাড় ভেঙ্গে গেছে। ভাঙ্গা অংশে তীব্র বেগে পানি ছুটতে গিয়ে ধানী জমির উপর বহু কৃত্রিম খালের সৃষ্টি হচ্ছে।

টানা বৃষ্টির মধ্যে উপজেলার কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক পথ হাঁটু পানিতে তলিয়ে গেছে। নোয়াপাড়া ইউনিয়নের হালদা পাড়ের মোকামী পাড়া, কচুখাইন, দক্ষিণ নোয়াপাড়া, চৌধুরীহাট এলকা কোমর পানিতে তলিয়ে যায়।

এছাড়াও চট্টগ্রাম রাঙ্গামাটির সড়ক পথের রাউজানের জলিলনগর, বেরুলিয়া, কুন্ডেশ্বরী এলাকায় পানি গড়াচ্ছে। পাহাড় থেকে নেমে আসা পানিতে তলিয়ে গেছে রাউজানের হাজীপাড়া, শরীফ পাড়া, কাজীপাড়া, বেরুলিয়া, শাহনগর, সত্তারপাড়া, জলিলনগর, হরিষখান পাড়া, ছিটিয়াপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকার রাস্তাঘাট।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত