টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ঢাবির বিতর্কে সেরা সলিমুল্লাহ মুসলিম হল

সাইফুল্লাহ সাদেক:

dচট্টগ্রাম, ৩১ আগস্ট (সিটিজি টাইমস) :: ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির আয়োজনে বার্ষিক আন্ত:হল বিতর্ক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে সলিমুল্লাহ মুসলিম হল ডিবেটি ক্লাব। ‘আজকের শিশু আগামীর বাংলাদেশ….চির জাগরুক স্বপ্ন অনিঃশ্বেষ’ স্লোগানে ‘শিশু নির্যাতন বিরোধী’ বিতর্ক প্রতিযোগিতা-২০১৫’র ফাইনালে তারা হারিয়েছে শামসুন্নাহার হল ডিবেটিং ক্লাবকে। এতে শ্রেষ্ঠ বক্তার পুরস্কার জিতেছেন বিজিত দলের সাংসদ নিপু ইসলাম তন্বী।

সংসদীয ধারার বার্ষিক এই বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮টি হলের ডিবেটিং ক্লাব। ‘বিচারহীনতার সংস্কৃতি বাংলাদেশে শিশু নির্যাতনের মূল কারণ’ বিষয়ের ওপর চার দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের ফাইনাল ও সমাপনী ২৯আগস্ট রোববার আর সি মজুমদার অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়।

ডিবেটিং সোসাইটির সভাপতি জি এম আরিফুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, এমপি, সম্মানিত অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। বিশেষ অতিথিদের মধ্যে ছিলেন প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক সহিদ আকতার হুসাইন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ডিবেটিং সোসাইটির মডারেটর অধ্যাপক ড. মাহবুবা নাসরীন।

অনুষ্ঠানে রাশেদ খান মেনন ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির এই উদ্যোগের প্রশংসা করে বলেন, আজ একদিকে কিছু ছাত্র শিক্ষকদের গায়ে হাত তুলছে আরেকদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-বিতার্কিরা শিক্ষকদের সম্মানের আসন বসিয়ে যুক্তিনির্ভর আলোচনার মধ্যদিয়ে শিশু নির্যাতনের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছে। তিনি বিতার্কিকদের এই প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, বিতর্কে হার-জিত, পুরস্কার পাওয়া না পাওয়া লক্ষ্য নয়, সমাজকে এগিয়ে নেওয়াই বিতর্কের লক্ষ্য। বিতার্কিকরা মানবতাবাদী। কেননা তারা যুক্তিতর্ক-আলোচনার মাধ্যমে নারী-শিশু সহ সমাজের সকল শ্রেণির মানুষের জন্য একটি শান্তিপূর্ণ পৃথিবী গড়ে তুলতে চায়।

ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক মো. আবু রায়হানের সঞ্চলনায় অনুষ্ঠানে বার্ষিক বিতার্কিক অনুসন্ধানের চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করা হয়। এতে ১ম ও ২য় বর্ষের ৪৫০জন থেকে ৪৮জন শিক্ষার্থী ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির সদস্যপদ অর্জন করে এবং এদের মধ্য থেকে বাংলা ও ইংরেজি বিতর্কে সেরা ৮জনকে বিশেষভাবে পুরস্কৃত করা হয়।

মতামত