টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রাউজানে শ্লীলতাহানির ক্ষতিপূরণ পাঁচ হাজার টাকা!

চট্টগ্রাম, ২৯ আগস্ট (সিটিজি টাইমস) :: চট্টগ্রামের রাউজানের ডাবুয়ার সুরঙ্গায় এক মহিলার শ্লীলতাহানির প্রচেষ্টা ও আহত হওয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত জামালের কাছ থেকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

জানা যায়, উপজেলার ২নং ডাবুয়া ইউনিয়নের সুরঙ্গা এলাকার দুই সন্তানের জননীকে গত ২৬ আগস্ট বুধবার দুপুর একটার দিকে আমন ধানের চাষাবাদের জমি থেকে আগাছা পরিষ্কার করার সময় জামাল উদ্দিন ওই মহিলার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন। এসময় তাকে ধর্ষণের প্রচেষ্টা চালান। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে জামাল উদ্দিনের হাতে থাকা ধারালো দা’য়ের আঘাতে মহিলার হাতের চারটি আঙ্গুল কেটে যায়। শোর-চিৎকারে এলাকার লোকজন এগিয়ে এলে জামাল উদ্দিন পালিয়ে যান।

এই ঘটনার পর ওই মহিলার স্বামীসহ এলাকার লোকজন প্রতিবাদ করলে জামাল উদ্দিনের প্রতিবেশী সাবেক মেম্বার আবদুল ছত্তার, শামীম, হানিফসহ শতাধিক লোকজন গত বুধবার বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত সুরঙ্গা এলাকায় গিয়ে ওই মহিলার স্বামী ও এলাকাবাসীকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেয় বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

এই ঘটনার ব্যাপারে ডাবুয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুর রহমান চৌধুরী বরাবরে আবেদন করেন ভিকটিম মহিলা।

শনিবার বেলা ১১টার দিকে এ ব্যাপারে ডাবুয়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে শালিসি বৈঠক হয়। বৈঠকে ডাবুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর রহমান চৌধুরী জামাল উদ্দিনকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন। শালিসি বৈঠকে লম্পট জামাল উদ্দিনকে চৌকিদার দিয়ে পিটিয়ে শাস্তি দেন।

তবে শ্লীলতাহানির শিকার মহিলা ও তার স্বামী জরিমানার টাকা না নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় থেকে চলে আসেন। ভিকটিমের স্বামী জানান, শালিসি বৈঠকে তারা বিচার পাননি। শ্লীলতাহানি করা লম্পট জামালকে শাস্তির নামে চড় থাপ্পর দিয়ে সাবেক মেম্বার আবদুল ছত্তারসহ তার লোকজন দ্রুত বাড়িতে নিয়ে যান বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

ডাবুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুর রহমান চৌধুরী জানান, শালিসি বৈঠকে শ্লীলতাহানির জন্য জামালকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা ও চৌকিদার দিয়ে বেত্রাঘাত করে শাস্তি প্রদান করা হয়।

এই ব্যাপারে রাউজান থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশের কাছে জানতে চাইলে, তিনি ঘটনার বিষয়ে কেউ রাউজান থানায় অভিযোগ করেনি বলে জানান।

জামাল উদ্দিন ডাবুয়া ইউনিয়নের হাছানখীল আরব নগর এলাকার ইউছুপের পুত্র বলে জানা যায়। এই ঘটনার ব্যাপারে রাউজানের ডাবুয়ার বিভিন্ন এলাকায় সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

মতামত