টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রামে ফার্মেসিকে জরিমানা ও সিলগালা

চট্টগ্রাম, ২৭ আগস্ট (সিটিজি টাইমস) :: নগরীর রিয়াজউদ্দিন বাজার, সদরঘাট ও নতুন ব্রীজ চামড়ার গুদাম এলাকার বিভিন্ন ঔষধের দোকানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেছে জেলা প্রশাসন। অনুমোদনহীন ও ভারতীয় ঔষধ বিক্রি, ডাক্তারি স্যাম্পল বিক্রি এবং ড্রাগ লাইসেন্স না থাকার অভিযোগে দুই ফার্মেসিকে মোট ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া ড্রাগ লাইসেন্স নবায়ন না করায় দুইটি ফার্মেসি সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের ডেপুটি রেভিনিউ কালেক্টর ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রুহুল আমীন।

তিনি বলেন, ‘নগরীর বিভিন্ন ফার্মেসিতে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী দীর্ঘদিন ধরে অনুমোদনহীন ঔষধ বিক্রি করছে। এছাড়া অনেক ব্যবসায়ীর ড্রাগ লাইসেন্স নেই। এসব অভিযোগে রিয়াজউদ্দিন বাজার ও সদরঘাট দুই ফার্মেসিকে মোট ২০ হাজার টাকা জরিমানা এবং ড্রাগ লাইসেন্স নবায়ন না করায় নতুন ব্রীজ চামড়ার গুদাম এলাকায় দুইটি ফার্মেসি সিলগালা করা হয়েছে। একই সঙ্গে তাদেরকে সর্তক করা হয়েছে। এছাড়া সরকার কর্তৃক নিষিদ্ধ কোন ঔষধ বিক্রি হচ্ছে কিনা বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হয়েছে। ’

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, ভারতীয় ও অনুমোদনহীন ঔষধ বিক্রির অভিযোগে রিয়াজউদ্দিন বাজারের আশা এন্টারপ্রাইজকে ১০ হাজার টাকা, নন ফার্মাসিউটিক্যাল পণ্য এবং ডাক্তারি স্যাম্পল বিক্রির অভিযোগে সদরঘাট এলাকার ভাল ফার্মেসিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া ড্রাগ লাইসেন্স নবায়ন না করায় কর্ণফুলী নতুন ব্রীজ চামড়া গুদাম এলাকার খাজা ফার্মেসি ও শাহ আমানত মেডিকেল স্টোর সিলাগালা করে দেওয়া হয়েছে।

ড্রাগ অ্যাক্ট ১৯৪০ এর বিভিন্ন ধারায় এসব জরিমানা করা হয়েছে বলে জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রুহুল আমীন।

ঔষধ তত্ত্বাবধায়ক কে এম মুহসীনিন মাহবুব বলেন, ‘বৃহস্পতিবার আমরা নগরীর ১৫টি ঔষধের দোকানে সরকার কর্তৃক নিষিদ্ধ ৫০ প্রকারের ঔষধ আছে কিনা যাচাই করে দেখেছি। তবে কোন দোকানে এ ধরণের ঔষধ পাওয়া যায়নি। যেসব দোকানে নিষিদ্ধ ঔষধ পাওয়া যাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ’

মতামত