টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

জবানবন্দী শেষে ৩ আইনজীবী কারাগারে

চট্টগ্রাম, ২৬ আগস্ট (সিটিজি টাইমস) :: ‘জঙ্গি’ সংগঠনে অর্থায়নের অভিযোগে সুপ্রীম কোর্টের তিন আইনজীবী ব্যারিস্টার শাকিলা ফারজানা, এ্যাডভোকেট হাসানুজ্জামান লিটন ও এ্যাডভোকেট মাহফুজুল হক চৌধুরী বাপনের ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী শেষে কারাগারে প্রেরণ করেছেন আদালত।
হাটহাজারী থানায় দায়ের হওয়া সন্ত্রাসবিরোধী আইনের একটি মামলায় বুধবার দুপুরে জবানবন্দী শেষে এ নির্দেশ দিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শহীদুল আলম।

এর আগে ভিন্ন মেয়াদে তিনজনের রিমান্ড শেষে সকালে তাদের আদালতে হাজির করা হয়।

চলতি বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি হাটহাজারী এলাকায় ‘আল মাদরাসাতুল আবু বকর’ নামে একটি কওমি মাদ্রাসায় অভিযান চালিয়ে ১২ জনকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-৭।

এ ঘটনায় হাটহাজারী থানায় দায়ের হওয়া মামলাটির তদন্তের দায়িত্বেও আছে র‌্যাব।

চট্টগ্রাম জেলা পিপি এ্যাডভোকেট আবুল হাশেম এ বিষয়টি স্বীকার করে জানান, হাটহাজারী থানার একটি মামলায় তিন আইনজীবীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

র‌্যাবের সহকারী পরিচালক এএসপি সোহেল মাহমুদ জানান, হাটহাজারী থেকে যারা গ্রেফতার হয়েছিলেন তাদের সঙ্গে তিন আইনজীবীর লিংক পাওয়ায় তাদের অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদ প্রয়োজন বিধায় তিন দিনের রিমান্ডে ছিলেন তারা। রিমান্ড শেষে আদালত ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী শেষে আদালত তাদেরকে কারাগারে পাঠায়। এ ব্যপারে তদন্ত কার্যক্রম অব্যাহত আছে।

জঙ্গি সংগঠন এসএইচবি’কে অর্থায়নের অভিযোগে ঢাকার ধানমণ্ডি থেকে ১৮ আগস্ট তিন আইনজীবীকে আটক করে র‌্যাব-৭।

এর মধ্যে ব্যারিস্টার শাকিলা ফারজানা ৫২ লাখ, এ্যাডভোকেট লিটন ৩১ লাখ ও এ্যাডভোকেট বাপন ২৫ লাখ টাকা সরবরাহ করেছেন বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

সাম্প্রতিক অভিযানে চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে এসএইচবি’র আস্তানায় অভিযান চালিয়ে ৮টি অত্যাধুনিক একে-২২ রাইফেলসহ বিপুল পরিমাণ বোমা ও বিস্ফোরক দ্রব্য উদ্ধার করে র‌্যাব-৭। এখন পর্যন্ত গ্রেফতার করা হয়েছে ২৯ জঙ্গি নেতাকর্মীকে।

গ্রেফতার তিন আইনজীবীর মধ্যে ব্যারিস্টার শাকিলা ফারজানা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এবং বিএনপির কেন্দ্রীয় তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সাবেক হুইপ ওয়াহিদুল আলমের মেয়ে।

মতামত