টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ছিলেন শিশুশ্রমিক, হয়ে গেছেন নতুন আফ্রিদি!

anwar-ali-intro-innerচট্টগ্রাম, ১৯ আগস্ট (সিটিজি টাইমস) :   পাকিস্তান ক্রিকেট দলে আনোয়ার আলিকে নিশ্চয় চিনেন আপনি। কিছু দিন আগেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১৭ বলে ৪৬ রানের চোখ ধাঁধানো এক ইনিংস খেলে দলকে জেতান তিনি। রাতারাতি বনে যান পাকিস্তানের জাতীয় তারকা। অথচ তার জীবনের শুরুটা ছিলো কল্পনার চেয়েও কঠিন। তার বাবা মারা যান শৈশবেই। পাকিস্তানের সোয়াত অঞ্চল ভাগ্যান্বেষে পরিবারসহ আনোয়াররা চলে আসেন করাচিতে। সেখানে মোজা তৈরির এক কারখানায় দৈনিক মজুরির বিনিময়ে কাজ করতেন তিনি। কিন্তু ক্রিকেটের প্রতি অদম্য নেশা আনোয়ারের জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে। এখন তাকে বলা হচ্ছে পাকিস্তানের নতুন আফ্রিদি। তাকে নিয়ে স্বপ্নে বিভোর পাকিস্তানের সমর্থকরা।

সোয়াত ছেড়ে করাচিতে এসে জীবনের সবচেয়ে কঠিন পরীক্ষার মুখে পড়েন আনোয়ার। মাত্র ১৫০ রুপির বিনিময়ে মোজা তৈরির কারখানায় কাজ করতেন তিনি। সারা দিন কারখানা কাজ করে বিকেলে বাড়ি ফেরার পথে দেখতেন ক্রিকেটারদের অনুশীলন। সেটা দেখে নিজের মালিককে রাতের শিফটে কাজ দেয়ার অনুরোধ করেন তিনি। ক্রিকেটের প্রতি দুর্ণিবার আকর্ষণ দেখে রাজি হয়ে যান তার মালিকও।

রাতে কাজ, দিনে ক্রিকেট; এভাবেই চলতে থাকে আনোয়ারের জীবন। এভাবেই স্থানীয় ক্রিকেট কোচ আজম খানের মনোযোগ আকর্ষণ করেন তিনি। আনোয়ারকে নিয়মিত ক্রিকেট খেলার পরামর্শ দেন আজম খান। কিন্তু চাকরি থাকবে না বলে রাজি হননি আনোয়ার। পরে আজম খান দিনপ্রতি ১৫০ টাকার বিনিময়ে ক্রিকেট খেলতে বলেন তিনি। রাজি হয়ে যান আনোয়ার। এরপর থেকে কেবল ক্রিকেটই আনোয়ারের ধ্যানজ্ঞান।

এরই ধারাবাহিকতায় আনোয়ারকে এখন ডাকা হচ্ছে নতুন আফ্রিদি হিসেবে। ২৭ বছর বয়সী এ যুবকের ক্যারিয়ারটা অবশ্য উত্থান- পতনের উত্তেজনাপূর্ণ গল্পে ভরপুর। ২০০৬ সালে পাকিস্তানের হয়ে যুব বিশ্বকাপে মাঠে নামেন তিনি। ফাইনালে তার দল ভারতে বিপক্ষে অলআউট হয়ে যায় মাত্র ১০৯ রানে। তারপরও পাকিস্তান ম্যাচটি জিতে যায় আনোয়ারের অবিশ্বাস্য বোলিংয়ে। ওই ম্যাচে ভারত ৯ রান তুলতেই হারায় ছয় উইকেট। তার মধ্যে পাঁচ উইকেটই নেন আনোয়ার। জাতীয় দলে ঢুকতে তাই খুব বেশি সময় লাগেনি।

কিন্তু এই উত্থানটা ধরে রাখতে পারেননি আনোয়ার। দ্রুত জাতীয় দল থেকে ছিটকেও যান তিনি। পরে পারি জমান ইংল্যান্ডে। সেখানে ল্যাঙ্কাশায়ারের হয়ে খেলতে থাকেন ক্রিকেট। টানা পরিশ্রম করে আবার জাতীয় দলের বন্ধ দরজাটা খুলে গেছে আনোয়ারের সামনে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তার ইনিংসটি বিশেষজ্ঞদের নজর কেড়েছে দারুণভাবে। রাতারাতি খ্যাতির শীর্ষে উঠে যাওয়া আনোয়ার কি পারবেন নিজের বর্তমান অবস্থা ধরে রাখতে? এই প্রশ্নের উত্তরটা আপাতত তোলা থাকছে সময়ের জন্য।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত