টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সাতকানিয়ায় বিপুল পরিমান জিহাদী বই ও লিফলেট সহ ৪ শিবির কর্মী আটক

আবদুল আউয়াল জনি
লোহাগাড়া-সাতকানিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 

Pic-Satkania-3চট্টগ্রাম, ১৭ আগস্ট (সিটিজি টাইমস) : চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় বিপুল পরিমান জিহাদী বই, কাফনের কাপড়, সিডি ক্যাসেট, চাঁদা আদায়ের রশিদ, উস্কানিমুলক বিভিন্ন লিফলেট, সরকার বিরোধি কর্মকান্ডের গুরুত্বপুর্ন নথিপত্র সহ ৪ শিবির কর্মীকে আটক করেছে সাতকানিয়া থানা পুলিশ।

১৭ আগষ্ট সোমবার দুপুরে তাদের আটক করা হয়।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সাতকানিয়া থানার এএসআই তারেক ও এসআই আলীমের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম শিবিরের আন্ডারগ্রাউন্ড অফিস হিসাবে ব্যাবহৃত উপজেলার উত্তর ঢেমশা আউয়াল মিঞার ভাড়া বাসার একটি কক্ষ থেকে থেকে তাদের আটক করে।

আটককৃতরা হল সাতকানিয়া উপজেলার উত্তর ঢেমশা ইন্দ্রার দিঘীর পাড় (আহমদ হোসেন সওদাগর বাড়ীর) জাফর মাষ্টারের পুত্র ইসলামী ছাত্রশিবির কেরানীহাট শাখার সাধারন সম্পাদক মোঃ আসাদুল্লাহ (২২), ছদাহা আফজলনগরের আমিন শরিফের পুত্র ছাত্রশিবিরের সাথী সদস্য মনির আহমদ প্রকাশ মাঈন উদ্দিন হাসান (২৪), উত্তর ছদাহা উখিয়ারকুলের মোহাম্মদ আলীর পুত্র ছাত্রশিবিরের সাথী সদস্য ওসমান গনি (২০), কালিয়াইশ মাষ্টার হাট (আব্দুর রশিদ খলিফার বাড়ীর) সুলতান আহমদের পুত্র বেলাল উদ্দিন (২৩)।

সাতকানিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন খন্দকার ও ওসি তদন্ত মাহমুদুল হাই পিপিএম প্রতিবেদককে বলেন আটককৃতরা দুধর্ষ জামায়াত শিবির ক্যাডার, নাশকতার পরিকল্পনাকারী ও বাস্তবায়নকারী, আটককৃতরা ২৮শে ফেব্রুয়ারির পরে নাশকতার একাধিক মামলার এজাহার ভুক্ত আসামী, তারা নাশকতার প্রস্তুতির মিটিং করার জন্য এলাকায় অবস্থান করছে খবর পেয়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশের একটি টিম সেখানে প্রেরণ করে তাকে আটক করতে সক্ষম হই। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা নাশকতা করার প্রস্তুতির কথা স্বীকার করেছে। আমরা আরও জানতে পারি বিভিন্ন সময় জামায়াত শিবিরের কেন্দ্রীয় নেতারা উক্ত বাসা কাম অফিসে এসে নাশকতার ছক তৈরি করে থাকে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত