টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রামে সক্রিয় হচ্ছে ৩৫ জাল নোট চক্র

takaচট্টগ্রাম, ১৩ আগস্ট (সিটিজি টাইমস) : প্রশাসনের কড়া নজরদারিতে ঈদুল ফিতরে সুবিধা করতে না পারলেও কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে চট্টগ্রামে সক্রিয় হয়ে উঠছে ৩৫ জাল নোট চক্রের সদস্যরা।

  চট্টগ্রামে মাত্র দুই দিনের ব্যবধানে পৃথক দু’টি অভিযানে তারা এক লাখ ৬২ হাজার জাল টাকা উদ্ধার এবং আটক তিনজনকে আটক করেছে।

নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার এস এম তানভীর আরাফাত জানান, সম্প্রতি কয়েকটি অভিযানে বিপুল পরিমাণ জাল নোটসহ কয়েকজনকে আটক করা হয়। আটকদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, জাল নোট ব্যবসায়ী চক্রের একাধিক সিন্ডিকেট চট্টগ্রাম মহানগরী ও জেলার কয়েকটি অঞ্চলে সক্রিয় রয়েছে। চট্টগ্রামে প্রায় ৩৫টি সক্রিয় জাল নোট পাচারকারী চক্রের তথ্য মিলেছে পুলিশের অনুসন্ধানে।

তিনি বলেন, জাল নোট চক্রের বিষয়ে পুলিশের বিশেষ নজরদারির কারণে ঈদুল ফিতরে খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি। সেই ধারাবাহিকতায় এখনো আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কঠোর অবস্থানে রয়েছে। তবে প্রতিবছরের মতো এবারও কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে তারা ফের সক্রিয় হয়ে উঠছে।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মো. আকতারুজ্জামান জানান, বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে চট্টগ্রাম হাটহাজারী সরকার হাট এলাকা থেকে এক লাখ টাকার জাল নোটসহ ইউনুচ প্রকাশ ইলিয়াছ (২৮) নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। সে ভুজপুর থানার পশ্চিম আঁধারমানিকের আব্দুল বাছেদের ছেলে।

অভিযানে অংশ নেওয়া জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অপর উপ-পরিদর্শক মো. শাহাদাত হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার রাতে হাটহাজারীর সরকার হাটে জালটাকাসহ একাধিক ব্যক্তিকে আটক করা হয়। এ সময় আটক ইলিয়াসের কাছ থেকে এক হাজার টাকার ১০০টি নোট মিলে সর্বমোট এক লাখ টাকার জাল নোট পাওয়া যায়। ইলিয়াছের সাথে জড়িতদের আটকে অভিযান অব্যাহত আছে।

তা ছাড়া এর আগে গত মঙ্গলবার ১১ আগস্ট বিকেলে নগরীর চান্দগাঁও থানাধীন বহদ্দারহাট এলাকা থেকে ৬২ হাজার টাকার জাল নোটসহ মো. মিজানুর রহমান (২৪) ও মো. কাদির (২৯) নামে দু’জনকে আটক করে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-৭। এদের মধ্যে মিজান আনোয়ারার পরৈকোড়া ইউনিয়নের ওষখাইনের মৃত গোলাম হোসেনের ছেলে। আর কাদির রাঙ্গুনিয়া থানার পূর্ব খিলমোগল আবু রায়হান মাস্টার বাড়ির মৃত আবদুল হামিদের ছেলে।

এ ব্যাপারে র‌্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক এএসপি সোহেল মাহমুদ বলেন, চান্দগাঁও থানাধীন বহদ্দারহাটস্থ জামান হোটেল অ্যান্ড বিরানি হাউজের ভিতর কতিপয় জাল টাকা ব্যবসায়ী জাল টাকা লেনদেনের জন্য অবস্থান করছে— এমন খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে ৬২ হাজার টাকার জাল নোটসহ দু’জনকে আটক করা হয়। জাল নোটের মধ্যে এক হাজার টাকার নোট ৫২টি ও ৫০০ টাকার ২০টি নোট রয়েছে।

তিনি জানান, একটি সংঘবদ্ধ চক্র ঢাকা থেকে আনা কোটি কোটি টাকার জাল নোট চট্টগ্রামের বাজারে ছড়িয়ে দেওয়ার অপচেষ্টা চালিয়ে আসছে। এরা এক হাজার টাকার নোটকেই কাজে লাগাচ্ছে বেশী। ওই চক্রের পুরো টিমকে গ্রেফতার করতে অভিযান অব্যাহত আছে।

মতামত