টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সাকিবকে যে কারণে টার্গেট করেছিলেন পাপন

spচট্টগ্রাম, ১১ আগস্ট (সিটিজি টাইমস) :বাংলাদেশ ক্রিকেটের শুরুর সময়টা ব্যর্থতা আর শৃঙ্খলার মধ্য দিয়েই কেটেছে। সেই সময় শাস্তি থেকে রেহাই পাননি বিশ্বসেরা অলরাউণ্ডার সাকিব আল হাসানও। তবে, সময়টা পাল্টেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) এর বর্তমান সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের সময়কালে। এই সময় বাংলাদেশের ঝুলিতেও এসেছে অনেক বড় বড় সাফল্য।

প্রথম দিকের কথা মনে করে পাপন বলেন, ‘কিছু খেলোয়াড় আছে যারা কাউকে পাত্তাই দিতনা । বাংলাদেশ ক্রিকেটের নিজেদেরকেই সব মনে করতো তারা। ওরা এত বেয়াদব যে,কল্পনার বাইরে। ওদের হাবভাব ছিলো অবিশ্বাস্য। এমনকি ঠিকমতো প্র্যাকটিসও করতো না, নানা ছলছুতো দেখিয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলতো না। দলের কেউ একজন উইকেট পাওয়ার পর সবাই উল্লাস করছে, তো একজন দেখি উল্টো দিকে হাঁটা দেয়। এসব তো টিম গেমে থাকলে চলে না।’

সাকিবকে শাস্তি দেওয়া প্রসঙ্গে পাপন বলেন, ‘আমি সাকিবকে টার্গেট করি একটা কারণে। তখন থেকেই সে ছিলো দেশের সেরা খেলোয়াড়। সবাই ওকে অনুসরণ করে। সাকিবকে ঠিক করা গেলে পুরো দলকেই ঠিক করা যাবে বলে ভেবেছিলাম। কিন্তু ওই তিন ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা ওকে পরিবর্তন করতে পারেনি। পরে যখন আরো দু-একটা ঘটনা ঘটে গেল, ভাবলাম যে, আর উপায় নেই। এবার আমার আসল রূপ দেখাতেই হবে। ওর মতো বিশ্বসেরা খেলোয়াড়কে কে বাদ দিতে চায়! কিন্তু সেটি আমি করতে বাধ্য হয়েছি। সাকিবের ভালোর জন্য, বাংলাদেশ ক্রিকেটের ভালোর জন্য।

কেননা, ও এবং আরো কয়েকজন ক্রিকেটারের তখন এমন ভাব হয়ে গিয়েছিল যে, কোনো কিছুই কেয়ার করতো না। নিজেরটাকেই সব কিছু মনে করতো।’ সেই সময় সাকিবকে ডেকে তিনি বলেছিলেন,’ তুমি কত ভালো খেলোয়াড়,তাতে আমার কিছু যায়-আসে না। বাংলাদেশকে জেতাতে পারো কি না, সেটি আমি দেখতে চাই। নইলে নিজে নিজে খেলে এক নম্বর অলরাউন্ডার হয়ে তোমার নাম বাড়াবে আর বাংলাদেশ দল হারতেই থাকবে, এটি আমি মেনে নেব না। ‘ এই কথা শুনার পরে সবচেয়ে ভয়ংকর হয়ে উঠেছিল, সাকিবের দেখাদেখি আরো অনেকের আচরণও তখন পরিবর্তন এসেছিলো। সে সময় আমি শুধু একটি কড়া বার্তা দিতে চেয়েছি। যেটির ফল আজকের বাংলাদেশ।

মতামত