টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মিরসরাইয়ে হত্যা মামলার আসামী ছাত্রলীগ ক্যাডার নোমান গ্রেপ্তার

এম মাঈন উদ্দিন
মিরসরাই প্রতিনিধি 

চট্টগ্রাম, ০৯  আগস্ট (সিটিজি টাইমস) :  মিরসরাইয়ে হত্যা মামলার প্রধান আসামী ছাত্রলীগ ক্যাডার আবু নোমানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। উপজেলার মিঠানালা বোর্ড অফিস এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। তার গ্রেপ্তারে এলাকার মানুষের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে। নোমানকে গ্রেপ্তারের পর শনিবার রাতে রহমতাবাদ এলাকার মতিনের দোকান থেকে সাইক্লোন সেল্টার পর্যন্ত এলাকায় একাধিক ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে এলাকায় আতংক সৃষ্টি করে তার গ্রুপের লোকজন।

জানা গেছে, গত ২৪ ফেব্রুয়ারী উপজেলার রহমতাবাদ এলাকায় গরু চোর সাজিয়ে স্থানীয় যুবক বেলাল হোসেনকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। ওই হত্যার ঘটনায় বেলালের পিতা নুর আলম বাদি হয়ে চট্টগ্রাম জজ আদালতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার এক নম্বর আসামী করা হয়েছে আবু নোমানকে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক এলাকাবাসী জানান, মিঠানালা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা শোভনের শেল্টারে দীর্ঘ সময় ধরে নোমান রহমতাবাদ, বামনসুন্দর, মিঠানালা, ইছাখালী এলাকায় সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে আসছে। হামলা, চাঁদাবাজি, ভাংচুর, মাছ লুট তার নিত্যমৈত্তিক কাজ। তার নেতৃত্বে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয় উপজেলা জামায়াতের আমির নুরুল করিমকে। বর্তমানে সে পঙ্গু অবস্থায় জীবন-যাপন করছেন। এলাকায় বিভিন্ন ব্যবসায়ীর কাছে চাঁদাদাবী করে নোমান। চাঁদা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলেও প্রতিষ্ঠানে ভাংচুর, লুট ও ব্যবসায়ীর উপর হামলার ঘটনা ঘটে। তার বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পায়না। তার নেতৃত্বে একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ উপজেলার ইছাখালী স্লুইস গেইটে পানি আটকে রেখে দীর্ঘদিন ধরে মাছ ধরছে। এতে করে ওই স্লুইস গেইটের আওতায় প্রায় একশ একর জমিতে চাষাবাদ করতে পাচ্ছে না কৃষকরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই এলাকার এক আওয়ামীলীগ নেতা বলেন, এ ধরনের ছেলের কারণে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। তার অত্যাচারে এলাকার মানুষ অসহায়। স্বার্থনেষী কয়েকজন আওয়ামীলীগ নেতার শেল্টারে দিন দিন নোমান বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

নোমান উপজেলার ১০ নম্বর মিঠানালা ইউনিয়নের রহমতাবাদ গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে।

উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক মাইনুর ইসলাম রানা নোমান ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত থাকার বিষয়টি অস্বীকার করেন।

মিরসরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ এমকে ভূঁইয়া বলেন, নোমানকে গোয়েন্দা পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। তার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা থাকার বিষয়টি স্বীকার করেন তিনি।

মতামত