টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

‘জয়কে হত্যার ষড়যন্ত্র জাসাসের পল্টন কার্যালয়ে’

joy-albdচট্টগ্রাম, ০৪ আগস্ট (সিটিজি টাইমস) : প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ ও হত্যার ষড়যন্ত্র জাতীয়তাবাদী সামাজিক-সাংস্কৃতি সংস্থার (জাসাস) প্রধান কার্যালয়ে হয়েছিল বলে দাবি করেছে পুলিশ।

রাজধানীর মিন্টো রোডে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে মঙ্গলবার দুপুরে সাংবাদিকদের কাছে এ দাবি করেন ডিবির যুগ্ম-কমিশনার মো. মনিরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই’র এক সাবেক ও একজন বর্তমান এজেন্টকে নিয়ে সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ ও হত্যার ষড়যন্ত্র করা হয়। এদের সঙ্গে মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে জাসাস নেতা মোহাম্মদ উল্লাহ মামুনের ছেলে রিজভী আহমেদ সিজারও ছিলেন।’

তিনি বলেন, ‘এ ঘটনায় তাদের সাজাও হয়েছে। কিন্তু এ ঘটনার ষড়যন্ত্র হয়েছিল পল্টনে জাসাসের প্রধান কার্যালয়ে। মূল ঘটনাস্থল জাসাসের কার্যালয় হওয়ায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতির প্রেক্ষিতেই পল্টন মডেল থানায় মামলাটি করা হয়েছে।’

মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘গত বছরের শেষের দিকে নিউইয়র্কে সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ ও হত্যার ষড়যন্ত্র করা হয়। এফবিআই এই খবর পেয়ে অনুসন্ধান শুরু করে। তারা জানতে পারে এ ষড়যন্ত্রের তথ্য জাসাস নেতা রিজভী আহমেদ সিজারকে এফবিআই’র একজন সাবেক ও একজন বর্তমান এজেন্ট সরবরাহ করছেন। এফবিআই’র তদন্তের প্রেক্ষিতে তাদের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় সিজার ও এফবিআই’র সাবেক এজেন্টকে তিন ও আড়াই বছরের সাজা প্রদান করা হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ ঘটনার সঙ্গে বিএনপির কোনো কোনো নেতা ও জোটের কেউ জড়িত থাকতে পারেন। রিজভীর বাবা জাসাস নেতা মোহাম্মদ উল্লাহ মামুন দুই বছর ধরে নিউইয়র্কে আছেন। তার মাধ্যমেই এ ষড়যন্ত্রে বিভিন্ন নেতাদের সমন্বয় হয়।’

ডিবির যুগ্ম-কমিশনার আরও বলেন, ‘ডিবি দক্ষিণের সহকারী কমিশনার হাসান আরাফাত এ ঘটনার তদন্ত কর্মকর্তা। যেহেতু ঘটনাস্থল একাধিক রয়েছে সেহেতু মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নিউইয়র্কে গিয়ে এফবিআইয়ের সহায়তা নেবেন।’-দ্য রিপোর্ট

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত