টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রাউজানে টানা বর্ষণে ক্ষতি ২০ কোটি টাকা

ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরির্দশন ও ত্রাণ বিতরণ করলেন ফজলে করিম চৌধুরী এমপি

এস.এম. ইউসুফ উদ্দিন
রাউজান প্রতিনিধি 

Raozan-mp-picচট্টগ্রাম, ০৩ আগস্ট (সিটিজি টাইমস) : সম্প্রতি রাউজানের বন্যা পরিস্থিতি সরজমিনে পরিদর্শন করছেন রাউজানে মাটি ও মানুষের নেতা এ.বি.এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি রাউজানের ব্যাপক বন্যার খবর পেয়ে পূর্ব নির্ধারিত রাষ্ট্রিয় কর্মসূচী সংক্ষিপ্ত করে তিনি গতকাল ৩ আগস্ট সোমবার ভোরে চলে আসেন রাউজানে। তিনি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন এবং দ্রুততর সময়ে রাউজান আবার আগের অবস্থায় ফিরে আসবে বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

টানা বর্ষায় সৃষ্ট পানির চাপে রাউজানের যোগাযোগ, কৃষি ও মৎস্যখাতে প্রায় ২০ কোটি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে সংশি¬ষ্ট সরকারি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে। খাল ও নদী ভাঙ্গনের কারণে কি পরিমান ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা নিরুপনে পানি উন্নয়ন বোর্ডের একজন নির্বাহী কর্মকর্তা ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেছেন।

গতকাল ৩ আগস্ট সোমবার উপজেলার দুর্গত এলাকা সমূহ পরিদর্শন করেন রেল মন্ত্রনালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এহেছানুল হায়দর চৌধুরী বাবুল। এসময় তারা এলাকার ক্ষয়ক্ষতির চিত্র ঘুরে দেখেন। এদিন তিনি সকাল সাড়ে নয়টায় চাল বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন গহিরায়। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের বীজ সংকট মোকাবেলায় সাংসদ তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৩ টন উন্নত ধান বীজ কিনে কৃষকদের দিতে টাকা প্রদান করেন। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ সূত্রে জানা যায় টানা বর্ষায় রাউজানে প্রায় সাড়ে সাত কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়ে রাস্তাঘাটের। উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা নাজিম উদ্দিন বলেছেন এখানে দুই হাজার পুকুর ডুবে মাছ ভেসে গেছে। কৃষি কর্মকর্তা শামীম হোসেন বলেছেন এই উপজেলার বিভিন্নস্থানে প্রায় পাঁচ হেক্টর ফসল নষ্ট হয়েছে।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এহেছানুল হায়দর চৌধুরী বাবুল বলেছেন রাউজানে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে হালদা, কর্ণফুলী নদী ও সর্তা, ডাবুয়া, রাউজান খালের তীর ভেঙ্গে। সাংসদের নিদ্দেশে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী তপন বড়ুয়া ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা সমূহ পরিদর্শন করে ক্ষয়ক্ষতি নিরুপন করার কাজ করছেন। প্রকৗশলী তপন বড়ুয়া বলেছেন এখানে ক্ষয়ক্ষতি ব্যাপক, নিরুপনে সময় লাগবে। এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি পৌরসভা ও বিভিন্ন ইউনিয়নে সারা দিন ঘুরে ক্ষয়ক্ষতি দেখে বিষ্ময় প্রকাশ করেছেন। তিনি গ্রস্থদের ভেঙ্গে না পড়ে মনোবল শক্ত রেখে আবারো কৃষিতে মনোযোগ দিতে পরামর্শ দিয়েছেন। এসময় তাদের পুনঃবাসনে সব ধরণের সহায়তার আশ্বাস প্রদান করা হয়। এসময় তার সাথে অন্যান্যদের মধ্যে ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কুল প্রদীপ চাকমা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক পৌর মেয়র শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বেবী, সহকারি কমিশনার ভূমি দীপক কুমার রায়, উপজেলা প্রকৌশলী আবুল কাসেম, প্রকল্পে কর্মকর্তা নিয়াজ মোরশেদ পৌর সভার প্যানেল মেয়র বশির উদ্দিন খান, আওয়ামীলীগ নেতা কাজী ইকবাল, ইয়াছিন চৌধুরী সিআইপি, চেয়ারম্যান আবদুর রহমান চৌধুরী, সরোদ্দী সিকদার, নুরুল আবসার বাঁশি, সাবেক চেয়ারম্যান শাহ আলম, কাউন্সিলর জমির উদ্দিন পারভেজ, সামিমুল ইসলাম েেচৗধুরী শামু, নজরুল ইসলাম,এস এম আসাদ উল¬াহ, বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, কাজী সওকত হাসান, কামরুল হাসান বাহদুর, আবদুল লতিফ, ছাত্রলীগ নেতা সৈয়দ আবদুল জব্বার সোহেল, জসিম উদ্দিন, সুমন দে প্রমূখ।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত