টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রামে জোর করে দেহ ব্যবসা, ফের আটক ৭

handচট্টগ্রাম, ৩০ জুলাই (সিটিজি টাইমস):  এক তরুণীকে জিম্মি করে জোর করে দেহ ব্যবসা করানোর অভিযোগে নগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে দুই নারীসহ সাতজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এসময় তাদের জিম্মিদশা থেকে তরুণীটিকেও উদ্ধার করা হয়।

বুধবার (২৯ জুলাই) রাতভর অভিযান চালিয়ে দুই নারীসহ সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তার হওয়া সাতজন হল, নগরীর চান্দগাঁও থানার ফরিদার পাড়া এলাকার বদিউল আলম (৩৫) ও তার স্ত্রী মণি বেগম (৩২), বদিউলের সহযোগী ওমর ফারুক (২৫), আরিফুল ইসলাম (১৯), আবু তালেব (৪৫), মো.আলমাস (৩০) এবং বেবি আক্তার (৩০)।

বাকলিয়া থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন জানান, ২৬ জুলাই বাকলিয়া থেকে এক তরুণীকে প্রতারণার ফাঁদে ফেলে জিম্মি করে বদিউলের লোকজন। পরে তাকে নগরীর চান্দগাঁও থানার ফরিদাপাড়ার একটি বাসায় রেখে অসামাজিক কাজকর্মে বাধ্য করানো হচ্ছিল।বদিউলের আস্তানা থেকে একইভাবে জিম্মিদশা থেকে পালিয়ে আসা এক তরুণী ঘটনাটি ওই তরুণীর ভাইকে জানিয়ে দেন। তরুণীর ভাই বাকলিয়া থানায় এ বিষয়ে অভিযোগ করলে পুলিশ অভিযানে নামে। বুধবার রাতে পুলিশ ফরিদা পাড়া থেকে বদিউলকে গ্রেপ্তার করে। এরপর তার দেয়া তথ্যমতে বাকি ছয়জনকে নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ওই তরুণীকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

এর আগে, সোমবার বিকালে নগরীর পাঁচলাইশ থানাধীন বেবী সুপার মার্কেট সংলগ্ন আদর্শপাড়া সালাম ভিলার ২য় তলা অভিযান চালিয়ে জারপূর্বক পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য হওয়া আখিঁ আক্তার নামে এক তরুনীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।এই সময় ০৪ পতিতাসহ ১৪ জন’কে গ্রেফতার করে নগর গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল।

 

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত