টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সীতাকুণ্ডে মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে জিম্মি করে ২ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

সীতাকুন্ড প্রতিনিধি

saveচট্টগ্রাম, ২৭ জুলাই (সিটিজি টাইমস): সীতাকুণ্ড সদর বাজারে প্রায় ২ কোটি টাকার মূল্যের একটি ৩য় তলা মার্কেট মানসিক ভারসাম্যহীন মালিককে এক বাড়ীতে জিম্মি করে কমিশন রেজিষ্ট্রীর মাধ্যমে হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাবে মানসিক রোগী পার্থ প্রতিম দাসের স্ত্রী সূবর্ণা রায় সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন। আজ সোমবার দুপুর ১২টায় লিখিত অভিযোগ পাঠ করে শুনান তিনি।

অভিযোগে সূবর্ণ রায় বলেন, তার স্বামী উচ্চ শিক্ষিত হলেও গত কয়েক বছর ধরে তিনি মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছেন। তাকে উচ্চতর চিকিৎসা করা হচ্ছে। বর্তমানেও তিনি চমেক হাসপাতালে মানসিক বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের শেষ সম্বলই হচ্ছে এই মার্কেটটি। স্থানীয় কিছু প্রতারক চক্র আবু বক্কর সিদ্দিক, ইদিলপুরের নূরুল আলম বাবলু, নিজাম উদ্দিন, মহানগর গ্রামের মোঃ আসলাম হোসেন, তার স্বামী পার্থ প্রতিম দাসকে গত ১৬ জুলাই ২০১৫ইং সীতাকুণ্ড ভোলাগিরি মন্দির এলাকায় জনৈক নেজাম উদ্দিন মেম্বারের বাড়ীতে জিম্মি করে রেখে সাব-রেজিষ্ট্রী অফিসের কতিপয় কর্মচারী আব্দুর শুক্কুরের সহযোগীতায় কমিশন মহানগর গ্রামের মোজাম্মেল হকের নামে রেজিষ্ট্রী দেখিয়ে হাতিয়ে নেয়। চক্রটি রেজিষ্ট্রী বৈধতা দেখাতে পার্থ প্রতিম দাসের নামে একটি এবি ব্যাংকে একাউন্ট খুলে ১৩ লক্ষ টাকা জামা করে দেন। দলিল নং হচ্ছে ৩৮৬৯ তাং ১৬/০৭/২০১৫ইং। এই সংবাদ তার স্ত্রী সূবর্ণা রায় জানতে পেরে সীতাকুণ্ড বাজার কমিটির কর্মকর্তা ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দদের নিয়ে তিনি সাব-রেজিষ্ট্রী অফিসে সাক্ষাত করে অভিযোগ করেন এবং রেজিষ্ট্রী বাতিলের দাবী জানান। একই দিনে তিনি এসিল্যান্ড মোঃ মাহবুব আলমের সঙ্গেঁ সাক্ষাত করে নামজারী না করার দাবী জানান। এসিল্যান্ড মানসিক ভারসম্যহীন পার্থকে হাজির করতে বলে তাকে হাজির করে মানসিক রোগী প্রমান পাওয়ার পর নামজারী না করার আস্বাসদেন এবং পার্থকে মানসিক চিকিৎসার প্রয়োজন কিনা সীতাকুণ্ড হাসপাতালে পাঠালে ডাঃ আবুল মোমেন পার্থ প্রতিম দাসকে চমেক হাসপাতালে মানসিক বিভাগে ভর্তি হওয়ার জন্য প্রেরণ করলে বর্তমানে তিনি চমেকে ভর্তি রয়েছেন। একজন মানসিক রোগীকে জিাম্ম করে তাদের শেষ সম্বল টুকু এভাবে হাতিয়ে নেয়াটা হিংস্র জানোয়ার সমতুল্য বলে আখ্যায়িত করেছেন উপস্থিত বক্তারা।

সংবাদ সম্মেলনে সূবর্ণা রায় এর পক্ষে উপস্থিত হয়ে বক্তব্য রাখেন সীতাকুণ্ড পৌর আ’লীগের সভাপতি আলহাজ্ব বদিউল আলম কমিশনার, সীতাকুণ্ড উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি ও বাজার দোকান মালিক সমিতির সাবেক সেক্রেটারী রেজাউল করিম বাহার, সীতাকুণ্ড সদর দোকান মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ নাছির উদ্দিন, ইঞ্জিঃ শাহ আলম, শিক্ষক মৃদুল দে, ব্যবসায়ী রনজিদ শাহা, ডাঃ সুবল, বাজার কমিটির কর্মকর্তা দিদারুল আলম এ্যাপেলো, মোঃ সহিদ, ব্যবসায়ী সুবল দাস সহ অন্যান্য ব্যবসায়ীরা। এ সময় বক্তব্য রাখতে গিয়ে সূবর্ণ রায়সহ অনেকেই কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন এই অমানবিক কাজের প্রতিবাদে। সম্মেলনে বক্তারা এই অবৈধ রেজিষ্ট্রী বাতিলের দাবীর পাশাপাশি জড়িত ব্যক্তিদের শাস্তির দাবী জানান।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত