টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

এক ঘণ্টায় প্রস্তুত হয়ে যাবে সাগরিকা!

চট্টগ্রাম, ২৫ জুলাই (সিটিজি টাইমস): ‘ক্রিকেট মাঠ নয় যেন ধানক্ষেত।’ চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম নিয়ে এমনই অভিযোগ ছিল। সাগরিকায় ২০ মিনিট বৃষ্টি হলেও মাঠে খেলা পরিত্যক্ত হয়ে যেত। আউট ফিল্ডে বড় বড় ঘাস আর পানি দেখে স্টেডিয়ামের পরিবর্তে ধানক্ষেতই মনে হতো। কিন্তু এক বছরে বদলে ফেলা হয়েছে সেই চিত্র। এখন আর বৃষ্টি হলে জমে থাকবে না পানি। মাত্র এক থেকে দেড় ঘণ্টার মধ্যে মাঠ খেলার জন্য প্রস্তুত হয়ে যাবে। সাগরিকার গ্রাউন্ড ও কিউরিটেরের কাছ থেকে পাওয়া সূত্র তাই বলে।

গতকাল টেস্টের চতুর্থদিন অবশ্য সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত টানা বৃষ্টি হওয়ায় ম্যাচ রেফারি দিনটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করেন। তবে দ্বিতীয় দিন ২৫ ওভার ও তৃতীয় দিন ২৪.১ ওভার খেলা হয়নি বৃষ্টির কারণে। ভারি বর্ষণ হয়ে থেমে যাওয়ার এক ঘণ্টার মধ্যে শুরু হয়েছে খেলা। তাই আশা করা যাচ্ছে আজ সকালে বৃষ্টি না হলে মাঠে খেলা গড়াবে। এমনকি বৃষ্টি হয়ে যদি বন্ধ হয়ে যায় একঘণ্টার মধ্যেই মাঠে ম্যাচ গড়াতে পারে। একটি সূত্র জানায়, ‘এখন আর মাঠের আগের অবস্থা নেই। আমার বিশ্বাস এখন টানা বৃষ্টির পর এক ঘণ্টা সময় পেলেই মাঠে ম্যাচ গড়াতে পারবে।’ তবে গতকালের মতো আজ সারা দিন রয়েছে বৃষ্টির প্রবল সম্ভাবনা।

২০১২ সাল থেকে জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে খেলা বন্ধ ছিল প্রায় এক বছর। পুরো মাঠের বালি উঠিয়ে নতুন ভাবে সেখানে বালি ফেলা হয়েছে। এরপর মাঠের অভ্যন্তরীণ ড্রেনেজ ব্যবস্থারও বেশ উন্নতি হয়েছে। ঘাসও এখন আর আগের মতো নেই। যে কারণে এখন বৃষ্টি হলেও খেলা মাঠে গড়াতে সময় লাগে না বলে জানিয়েছেন কিউরেটর জাহিদ রেজা বাবু। টানা বৃষ্টির পর উইকেট কেমন আচরণ করবে তা নিয়ে অবশ্য তিনি মুখ খুলতে চাইলেন না। তিনি বলেন, ‘আসলে এটি বলা খুবই কঠিন। কারণ গতকাল থেকে উইকেট ঢাকা ছিল। তাই উইকেট না দেখে বলা যাচ্ছে না কেমন আচরণ করবে।’ তবে ধরাণা করা হচ্ছে মাঠে খেলা গড়ালে এখানে পেসাররাই বেশি সুবিধা পাবেন।-মানব জমিন

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত