টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

আবার দপ্তর পাচ্ছেন সৈয়দ আশরাফ?

albdচট্টগ্রাম, ১৫ জুলাই (সিটিজি টাইমস):: স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে অব্যাহতি দেওয়ার পর সপ্তাহ না ঘুরতেই আবারো সকারের গুরুত্বপূর্ণ দপ্তরের দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও দপ্তরবিহীন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে।

দৈনিক কালের কণ্ঠ জানায়, মঙ্গলবার রাতে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৈয়দ আশরাফ দীর্ঘ সময় একান্ত বৈঠক করেছেন। সেখানে এমনটাই আলোচনা হয়েছে বলে একাধিক সূত্র দাবি করেছে।

গতকালের বৈঠকের পরিপ্রেক্ষিতেই আজ বুধবার সৈয়দ আশরাফ তার পূর্বনির্ধারিত লন্ডনযাত্রা বাতিল করেছেন বলে জানিয়েছেন মন্ত্রীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা সৈয়দ তোফাজ্জল ইসলাম।

তবে সৈয়দ আশরাফকে ঠিক কী দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে সে বিষয়ে সূত্রগুলো দুই রকম তথ্য দিয়েছে। একাধিক সূত্র বলছে, সৈয়দ আশরাফকে ফের একটি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। আরেকটি সূত্র বলছে, তাকে জাতীয় সংসদে সরকারি দলের গুরুত্বপূর্ণ কোনো দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে।

গত বৃহস্পতিবার সৈয়দ আশরাফকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে দপ্তরবিহীন মন্ত্রী করা হয়। এরপর শেখ হাসিনা ও সৈয়দ আশরাফের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে কি না, তা নিয়ে বিভিন্ন মহলে আলোচনা শুরু হয়। সৈয়দ আশরাফ রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়তে পারেন বলেও দলের মধ্যে গুঞ্জন শুরু হয়।

গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে যান সৈয়দ আশরাফ। রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত সেখানেই ছিলেন। এর মধ্যে দেড় ঘণ্টার মতো তিনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন।

গণভবন থেকে বের হওয়ার পথে তার কর্মকর্তাদের সৈয়দ আশরাফ জানান, তিনি বুধবার (আজ) বিদেশে যাবেন না। ছোট ভাইয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এবং পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে ঈদ করতে তার লন্ডন যাওয়ার কথা ছিল।

গতকালের বৈঠকের বিষয়ে সৈয়দ আশরাফের ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় এক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে রাতে কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘গত এক সপ্তাহে দলের মধ্যে যে গুমট পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৈয়দ আশরাফের বৈঠকের পর তা দূর হলো। তবে ঠিক কোন পয়েন্টে দুজন (প্রধানমন্ত্রী ও সৈয়দ আশরাফ) একমত হয়েছেন সে বিষয়টি আমি বলতে পারব না।’

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির আরেক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘আশরাফ ভাইকে সম্ভবত একটি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। যত দূর শুনেছি তাকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে।’

দলীয় একাধিক সূত্র মতে, রবিবার রাতেও সৈয়দ আশরাফ গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ কথা বলেছেন। সেখানে সৈয়দ আশরাফের কাছে প্রধানমন্ত্রী জানতে চান তিনি কোন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিতে চান। তবে সেদিন সৈয়দ আশরাফ এ বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু জানাননি।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত