টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

একাত্তরে সাকা দেশে ছিলেন মর্মে পত্রিকার কাটিং দাখিল

saka-chowdhuryচট্টগ্রাম, ০৮ জুলাই (সিটিজি টাইমস): মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদের (সাকা) চৌধুরী ‘৭১ সালে দেশে ছিলেন এর প্রমাণ হিসেবে পত্রিকার কাটিং দাখিল করা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে।

বুধবার সকাল ৯টার দিকে আদালতের কার্যক্রম শুরুর পর অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ১৯৭১ সালের ২৯ সেপ্টেম্বরের ‘দৈনিক পাকিস্তান’ পত্রিকাটি আদালতে উপস্থাপন করেন। পরে পত্রিকাটি দেখে তা (অ্যাফিডেভিট) সত্যায়িত করে দাখিল করার জন্য বলেন আদালত।

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে চার বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। বেঞ্চের অন্য বিচারপতিরা হলেন- বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন ও বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

গতকাল মঙ্গলবার রাষ্ট্রপক্ষের করা এক আবেদনের প্রেক্ষিতে সাকার মামলায় আপিলের কার্যক্রম শেষ হওয়ার পরেও পত্রিকা কাটিং দাখিল করার জন্য আজ আবার তা কার্যতালিকা (কজলিস্টে) ছিল।

জানা যায়, ১৯৭১ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর “দৈনিক পাকিস্তান” পত্রিকায় সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও তার সঙ্গীদের ওপর মুক্তিযোদ্ধাদের একটি দল আক্রমণ চালিয়েছিল মর্মে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। ওই আক্রমণে সাকা চৌধুরী আহত হয়। ১৯৭১ সালের বিভিন্ন ঘটনায় সাকা চৌধুরী জড়িত ছিল মর্মে ৬টি মামলা হয়েছিল। ১৯৭১ সালে সাকা দেশে ছিলেন না মর্মে যে দাবি তার আইনজীবীরা করেন তাও সঠিক নয়। এই পত্রিকায় ২৯ সেপ্টম্বর ‘৭১ সালে প্রকাশিত সংবাদই তার প্রমাণ বলে জানান অ্যাটর্নি জেনারেল। তবে সাকা চৌধুরীর আইনজীবীরা দাবি করে আসছেন একাত্তর সালে তিনি পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন এবং সেখানেই অবস্থান করতেন।

প্রসঙ্গত, গতকাল ৭ জুলাই বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন (সাকা) কাদের চৌধুরীর মৃত্যুদ-াদেশের বিরুদ্ধে করা আপিল শুনানি শেষ হয়। আগামী ২৯ জুলাই রায় ঘোষণার দিন ধার্য করা হয়েছে।

মতামত