টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

তেলবাহী ওয়াগন দুর্ঘটনা : ১৬ দিন পর ট্রেন চলাচল

ctgচট্টগ্রাম, ০৫ জুলাই (সিটিজি টাইমস): চট্টগ্রাম বোয়ালখালী বেঙ্গুরার সাকিরাপুল এলাকায় রেলওয়ের তেলের ওয়াগন দুর্ঘটনার পর চট্টগ্রাম-দোহাজারী রুটে অবশেষে ট্রেন চলছে।

১৬ দিন পর ইঞ্জিন উদ্ধার শেষে শন্বিার পরীক্ষামুলক ট্রেন চালানো হয়েছিল। এরপর রবিবার সকাল থেকে এ লাইনে ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে।

এ দিকে দুর্ঘটনার পর গঠিত দুই কমিটিকে তিনদিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হলে ১৭ দিনেও তাহা উপেক্ষিত রয়ে গেল।

বোয়ালখালী বেঙ্গুরার সাকিরাপুল এলাকায় রেলওয়ের তেলের ওয়াগন দুর্ঘটনায় পূর্বাঞ্চল রেলের প্রধান প্রকৌশলী(যান্ত্রিক) হারুন অর রশিদ ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় প্রকৌশলী-১ আবিদুর রহমানকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট দুইটি কমিটি গঠন করা হয়। ওই দুই কমিটিকে দুর্ঘটনার তিনদিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হলেও ১৭ দিন পরও তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে পারেনি।

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক মোজাম্মেল হক জানান, বিভিন্ন প্রতিকুলতায় তদন্ত কমিটির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সময় বাড়ানো হয়েছিল। তবে গত বৃহস্পতিবার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়া কথা থাকলেও তাহা দিতে ব্যর্থ হয়েছেন।

এ ব্যপারে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। দুর্ঘটনার পর দায়িত্ব অবহেলার কারণে অতিরিক্ত নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুল হালিম ও সিনিয়র উপ-সহকারি প্রকৌশলী আক্তার আহমেদ ফেরদৌসকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছিল।

তদন্ত কমিটির প্রধান পূর্বাঞ্চল রেলের প্রধান প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) হারুন অর রশিদ ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় প্রকৌশলী-১ আবিদুর রহমান জানান, বর্ধিত সময় শেষ হওয়ার পরও প্রতিবেদন জমা দিতে না পারার কারণ হচ্ছে এখনো তদন্ত কাজ শেষ হয়নি।

গত ১৯ জুন বিকেলে বোয়ালখালীর বেঙ্গুরা এলাকার রেলওয়ের ২৪নং সেতু ভেঙ্গে ইঞ্জিনসহ তিনটি তেলবাহি ওয়াগন খালে পড়ে গিয়ে দুইটি ওয়াগন ডুবে যায়। দোহাজারী ১০০ মেগাওয়াট পিকিং পাওয়ার প্লান্টের জন্য জ্বালানি তেলগুলো নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত