টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

হার দিয়ে বাংলাদেশের সিরিজ শুরু

spচট্টগ্রাম, ০৫ জুলাই (সিটিজি টাইমস): লক্ষ্য ১৪৯। এই জামানায় টি-টোয়েন্টির জন্য এটা মোটেও কঠিন কিছু নয়। আর দলটা যখন এই সময়ের বাংলাদেশ, তখন জয়ের আশা করাটা সঙ্গত ছিল। কিন্তু হল না। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ব্যাটসম্যানদের দৃষ্টিকটু ব্যর্থতায় ৫৩ রানে হারতে হল বাংলাদেশকে।

আফ্রিকার ইনিংসের খবর পড়তে পাশের লিংকে ক্লিক করুন-স্পিনজালে ১৪৮এ আটকা আফ্রিকা

ব্যাট করতে নেমে শুরুটা একদম ভাল হয়নি বাংলাদেশের। প্রথম ওভারে অ্যাবটের লেগ স্ট্যাম্পের বাইরের শর্ট বলে অযথা পুল করতে চেয়েছিলেন তামিম (৫)। বল ব্যাটে ঘেঁষে চলে যায় উইকেটরক্ষক ডি ককের হাতে। ছেড়ে দিলে নিশ্চিত ওয়াইড হতো।

পরের ওভারের শেষ বলে রাবাডা সৌম্যর (৭) বাম কাঁধ বরাবর বাউন্সার দেন। পুল করার মতো পজিশনে না থেকেও ব্যাট চালান সৌম্য। ক্যাচ ওঠে ডিপ স্কয়ার লেগে। লুফে নিতে ভুল করেননি ডুমিনি।

দ্রুত দুই উইকেট হারানোর পর সাকিব-মুশফিক হাল ধরার চেষ্টা করেন। ৩৭ রানের জুটি গড়ে অষ্টম ওভারের শেষ বলে ডুমিনিকে ডাউন দ্য ট্রাকে যেয়ে বল হাফভলি বানিয়ে মিড উইকেট দিয়ে উড়িয়ে মারতে চেয়েছিলেন মুশফিক। কিন্তু ডিপ মিডউইকেটে মিলারের হাতে ধরা পড়ে যান।

মুশফিক ফিরে গেলে সাব্বির (১) এসেই বিদায় নেন। নবম ওভারের দ্বিতীয় বলে ডুমিনিকে রিভার সুইপ করতে যান তিনি। কিন্তু বল ব্যাটে ঠিক মতো না লাগলে, তা চলে যায় উইকেটের পেছনে। দ্রুত পজিশনে চলে যান ডি-কক। প্রথমে প্যাড দিয়ে, তারপর বুক দিয়ে বল গ্লাভসে নিতে সমর্থ হন এই আফ্রিকান।

তামিম, সৌম্যর দৃষ্টিকটু আউটের পর নাসিরের (১) উইকেটটিও চোখের জন্য বেশ যন্ত্রণার ছিল। দশম ওভারের প্রথম বলে ফানজিসোর অফস্ট্যাম্পের বাইরের বলে আনাড়ি ভঙ্গিতে ব্যাট চালান। মাথাসহ বডি ছিল লাইনের বাইরে। অনুমিতভাবেই বল চলে যায় শর্টকভারে দাঁড়ানো রশৌর হাতে।

বিপদের সময় সেট হয়েও দলকে টেনে নিতে ব্যর্থ হন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। ১৩তম ওভারের দ্বিতীয় বলে ওয়াইজকে অনেকটা স্কুপের মতো ল্যাপ-সুইপ করতে চেয়েছিলেন তিনি। হয়তো ভুলে গিয়েছিলেন ফাইন-লেগে দাঁড়ানো পারলেনের কথা! কিন্তু পারলেন ‘সন্দেশে’র মতো উড়ে আসা ক্যাচ ধরতে এতটুকু ভুল করেননি। ২৬ রানে থামিয়ে দেন সাকিবের ইনিংস।

কাপ্তান মাশরাফি (৫) স্কোর ভদ্রস্থ করতে চেয়ে ব্যর্থ হন। ১৪তম ওভারের শেষ বলে রাবাডার অতিরিক্ত লাফিয়ে ওঠা বলে পুল করেন। বল ছিল অফস্ট্যাম্পের বাইরে। এ ধরনের বলে পুল করলে বেশি দূর যাওয়ার কথা নয়। হলও তাই। ডিপ-মিডউইকেটে ভিলিয়ার্সের হাতে ধরা পড়েন টাইগার দলপতি।

এরপর সোহাগ গাজী, লিটন দাসরা ১৮.৪ ওভার ব্যাট করেছেন ঠিকই, তবে তাতে কেবল অতিথিদের জয় পেতে বিলম্ব হয়েছে। স্কোর শতকের ঘরও পার হয়নি, ৯৬!

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত