টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সীতাকুন্ডে জমে উঠেছে ঈদের বাজার, ব্যস্ত দোকানীরা: মেয়েদের পছন্দ ‘কিরণমালা’

মো. ইমরান হোসেন
সীতাকুন্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 

Mirsarai-Eid-Bazarচট্টগ্রাম, ০৪জুলাই (সিটিজি টাইমস):বছর ঘুরিয়ে আবারো এলো মুসলিম সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদ।বাহারি পোশাকে অপরুপ সাজে সাজানো উপজেলার বিপনিবিতান গুলো। এখনো ঈদের বাকি ১৪-১৫ দিন বাকি থাকলেও সীতাকুন্ডের বিপনী বিতান গুলোতে লোকে লোকারণ্য। ধম ফেলানোর ফুসরত নেই ব্যবসায়ীদের। আর বিপনি বিতান গুলো প্রতিবারের থেকেও এবার ভারতীয়, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুরসহ বিভিন্ন দেশের নতুন নতুন সব ধরনের পোশাকের কালেকশান রয়েছে বেশি। বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের চাহিদার কথা মাথায় রেখে দোকানিরা সাজিয়েছে নতুন নতুন ডিজাইনের দেশি ও বিদেশি কাপড় । সকাল ৮টা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত চলছে এ জমজমাট বিকিকিনি।

উপজেলার বিভিন্ন স্থানে ঘুরে দেখা যায়, ভাটিয়ারী খাজা ট্রেডার্স, মিনা মার্কেট, কুমিরার মদিনা মার্কেট, মক্কা মার্কেট, ছোটকুমিরা বিসমিল্লাহ শপিং সেন্টার, বাড়বকুন্ড বাজার, গনি মার্কেট, সীতাকুন্ডের শপিং সেন্টার, সুপার মার্কেট, নিউমার্কেট, ন্যাশনাল মার্কেট, নাহার প্লাজা, আফরোজা প্লাজা, বিগবাজার, বড় বাজার, মসজিদ মার্কেটসহ বেশিরভাগ শো রুমগুলো কারুকাজেভরা মহিলাদের শাড়ির দখলে। এ ধরনের শাড়ি নিম্নে ১ হাজার ৫ শ টাকা থেকে ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত রয়েছে।

এবার মহিলাদের নতুন কালেকশনে শাড়ির মধ্যে স্থান দখল করে নিয়েছে বেনারসি কাতান, বুটিক্স কাতান, লেহাঙ্গা কাতান ও মিরপুর কাতান। যার দাম নিম্নে সাড়ে তিন হাজার থেকে নয় হাজার টাকা পর্যন্ত। আর মেয়েদের জন্য রয়েছে ভিবেক, রাজকন্যা, থ্রিপিচ যার মুল্য তিন হাজার থেকে ১১ হাজার টাকা পর্যন্ত।

জেন্টস পোশাকের দোকানগুলো পণ্য তোলার ক্ষেত্রে পিছিয়ে নেই। হাতে কাজকরা পুরুষদের বাহারি পাঞ্জাবী, থাই, ইন্ডিয়ান পাঞ্জাবি কাটপিচ, টি শার্ট, জিন্স পেন্ট, স্টিস ও গাভাডিং কাপরের পেন্ট সহ দেশি বিদেশি পোশাকে শোভা পাচ্ছে জেন্টস দোকান গুলোতে। সমান তালে চলছে কসমেটিকসের দোকান গুলোও।

ঈদকে সামনে রেখে মহিলাদের মেহেদী থেকে শুরু করে বিভিন্ন সাজ-সজ্জার দেশি-বিদেশী কসমেটিকসসহ বিভিন্ন ধাতুর তৈরিগহনায় দোকানগুলো যেন অন্যরকম আলো ছড়াচ্ছে। ক্রেতাদের সরব উপস্থিতি আলোর চ্ছটাকে যেন আরো বাড়িয়ে দিয়েছে। এদিকে দিন-রাত কাজ করে নির্ঘুম কাটাচ্ছেন উপজেলার বিভিন্ন মার্কেটের দর্জিরা। প্রতিবারের তুলনায় এবার রমজানমাস শুরুর অনেক আগে থেকেই পোশাকের বেশি বেশি অর্ডার থাকায় তারা এখন প্রায়ই দিনেরাতে শ্রম দিচ্ছেন।

সীতাকুন্ডের বিপনী বিতনগুলোর প্রায় প্রত্যেক দোকানের ব্যবসায়ীরা জানান, মেয়েদের পছন্দের মধ্যে এবার বেশি বিক্রি হচ্ছে ‘কিরণমালা’। বেশির ভাগ মেয়েদের-ই পছন্দ এবারের সবেচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া এ ভারতীয় সিরিয়াল কিরণমালার এ থ্রিপিস। এছাড়াও মেয়েদের পছন্দে রয়েছে জলনূপুর টাপুরটুপুর, ঝিলিক, জলপরী, পাখি।

সীতাকুন্ডে ঈদের কেনাকাটা করতে আসা শাহিন সুলতানা উর্মী জানান, ঈদের কেনাকাটা কিছু করেছি আরো বাকি আছে। আজকে শুক্রবার ছিল তাই সবাইকে একসাথে নিয়ে মার্কেটে আসলাম। থ্রি-পিছের মধ্যে কোনটি পছন্দ এমন প্রশ্নের জবাবে বললেন, ‘গতবারের নতুন আকর্ষন ছিল পাখি ড্রেস। এবারও আমার বান্ধবীরা সবাই নাকি ‘কিরণমালা’ নিয়েছে। আমি থ্রী-পিছটির নাম শুনেছি। যদি ভালো লাগে আমারও নেওয়ার ইচ্ছা আছে।

শাহজালাল ক্লথ ষ্টোরের সত্তাধিকারী মো. শাহ জালাল জানান,‘ এবারের পছন্দের তালিকায় বেশি ভারতীয় সিরিয়ালের নামে পোশাকগুলো বেশি ক্রেতাদের পছন্দ। তবে অনেকে তাদের বাজেট কম থাকায় সেটি নিতে না পারলে অন্যটি নিচ্ছে। তবে বেশিরভাগ ক্রেতারই ‘কিরণমালা’ পছন্দ।

উপজেলার শিবপুর থেকে আসা নিলুফা আক্তার ঝর্ণা বলেন, এমনিতেই এখন বর্ষাকাল। তাছাড়া ঈদের কাছাকাছি সময়ে যদি মার্কেটিং করা হয় তখন দামও বেশি থাকে আবার পছন্দের পোশাকটিও পাওয়া যায় না। পোশাকের মান ও দাম প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এবার বিভিন্ন ধরনের পোশাক বাজারে দেখা যাচ্ছে। তবে গত বারের তুলনায় আমার কাছে মনে হচ্ছে দামটা একটু চড়া।

বারইয়ারহাট পৌর বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. বেলাল হোসেন বলেন, নির্বিঘেœ বেচা-কেনার জন্য আমরা নিরাপত্তার ব্যবস্থা নিয়েছি। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াড়ে থানা পুলিশের সাথে যোগাযোগ রাখা হয়েছে।

সীতাকুন্ড থানার ওসি মো. ইফতেখার হাসান জানান, ঈদ বাজার ও ক্রেতাদের নিরাপত্তায় পুলিশ সতর্কবস্থানে থাকবে। ঈদের কেনাকাটার নিরাপত্তায় টহল পুলিশ ও সাদা পোশাকে পুলিশ এবং বিশেষ পুলিম টিম থাকবে। যাতে কোন ধরনের অপ্রীতিকর কোন ঘটনা না ঘটে আর তা নিশ্চিত করতে যা যা করা দরকার আমরা ব্যবস্থা নিব।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত