টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বহদ্দারহাটে ট্রাক চাপায় শিক্ষার্থী নিহত: প্রণয়ের আগেই থেমে গেল তপুর প্রেম

ctg-topuচট্টগ্রাম, ১৮ জুন (সিটিজি টাইমস):: প্রণয়ের আগেই থেমে গেল সত্যপ্রিয় দাশ তপুর প্রেম। সিটি কলেজের অনার্স ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী তপুর বিয়ে ঠিক হয়েছিল একই কলেজের ইংরেজী বিভাগের ৪র্থ বর্ষের এক ছাত্রীর সঙ্গে। কিন্তু সে স্বপ্ন আর পূরণ হল না। হাতে মেহেদি না পরে রক্তমাখা শরীর নিয়ে তাকে বিদায় নিতে হল পৃথিবী থেকে। 

তপুর সহপাঠী মোহাম্মদ হোসেন  বলেন, ‘একই কলেজের ইংরেজী বিভাগের ৪র্থ বর্ষের এক শিক্ষার্থীর সাথে তপুর ৬ বছরের সম্পর্ক ছিল। তাদের ‍দুই জনের বাড়ি মহেশখালীর একই এলাকায়। দুই পরিবারের সম্মতিতে ২০১৭ সালের শুরুতে তাদের বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। ঘটনার পর মেয়েটি কিছুক্ষণ পর পর অজ্ঞান হয়ে পড়ছে। তার অনেক স্বপ্ন ছিল। কিন্তু দুর্ঘটনা সব শেষ করে দিল।’

‘পড়াশোনা শেষ করে চাকরি করবে, নতুন ঘর তুলবে, বিয়ে করবে। সংসারের হাল ধরবে। কিন্তু আমার সে স্বপ্ন আর পূরণ হলো না।’

নগরীর বহদ্দারহাটে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত সিটি কলেজের শিক্ষার্থী সত্যপ্রিয় দাশ তপুর মা শিলা দাশ দুপুরে নগরীর বলুয়ার দিঘী শশ্মানে এভাবেই বিলাপ করছিলেন আর মূর্ছা যাচ্ছিলেন।

একমাত্র উপার্জনক্ষম সন্তানকে হারিয়ে দিশেহারা তপুর মা। তপুর সহপাঠী ও স্বজনরা তাকে সান্ত্বনা দিচ্ছেন। কিন্তু কোনো সান্ত্বনাই যেন তার শোক ভুলাতে পারছে না।

এর আগে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ মর্গ-এ গিয়ে দেখা গেছে, প্রিয় সহপাঠীর মুখ শেষবারের মতো দেখার জন্য অধীর আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছেন তারা। সহপাঠীকে হারিয়ে বেদনার্ত সিটি কলেজের শিক্ষার্থীরা। নির্বাক ওই কলেজের শিক্ষকরাও।

নিহতের মামা হারাধন দাশ জানান, ‘কক্সবাজার জেলার মহেশখালীর ঘোরকঘাটা এলাকায় তপুদের গ্রামের বাড়ি। শুলকবহর রওশন বোর্ডিং এলাকায় একটি মেসে থাকতেন তিনি। দুই ভাই এক বোনের মধ্যে সত্যপ্রিয় ছিলেন সবার বড়। শুলকবহর রওশন বোর্ডিং এলাকায় একটি মেসে থাকতেন তিনি।’

তিনি আরো জানান, ‘গত বছরের ১৩ জুন পানিতে ডুবে সত্যপ্রিয়র বাবা মারা যান। চট্টগ্রামে টিউশনি করে সে নিজের ও পরিবারের খরচ চালাত। সকালে মেস থেকে বেরিয়ে চকবাজারে টিউশনিতে যাওয়ার পথেই ট্রাকচাপা পড়েন তপু। সত্যপ্রিয়র ছোট বোন চয়নিকা দাশের বিবাহ হয়েছে ও ছোট ভাই শিপু দাশ স্থানীয় বিদ্যালয়ে ৮ম শ্রেণীতে পড়ছে।’

এদিকে দুর্ঘটনায় সহপাঠীর মৃত্যুর পর বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া ১২টার দিকে কলেজের শিক্ষার্থীরা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গ সংলগ্ন প্রবর্ত্তক মোড় এলাকায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করে। এসময় প্রায় আধা ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ থাকে।

সিটি কলেজের অর্থনীতি বিভাগের সভাপতি আব্দুল আলীম বলেন, ‘সত্যপ্রিয় মেধাবী ছাত্র ছিল। সে আমাদের বিভাগে প্রথম স্থানে ছিল। আগামী জুলাইয়ে তার চতুর্থ বর্ষ অনার্স পরীক্ষায় বসার কথা ছিল। শিক্ষাজীবনের শেষ সময়ে ঠিক যে মুহূর্তে জীবন সাজানোর কথা ছিল, সেই মুহূর্তে এই হূদয়বিদারক ঘটনায় আমরা মর্মাহত।’

সকালে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ মর্গে গিয়ে চট্টগ্রাম সরকারী সিটি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আবদুল হামিদ  বলেন, ‘সড়ক দুর্ঘটনায় অকালে মেধাবীদের হারিয়ে যাওয়া মেনে নেয়া যায়না। সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে রাষ্ট্রের কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। এছাড়া এই ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনার দাবী জানাচ্ছি।’

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত