টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

‘গ্রেপ্তার আতঙ্কে’ সিসির দক্ষিণ আফ্রিকা সফর বাতিল

worldচট্টগ্রাম, ১২ জুন (সিটিজি টাইমস)::  ‘গ্রেপ্তার আতঙ্কে’ আকস্মিকভাবে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর বাতিল করে দিলেন মিশরীয় স্বৈরশাসক আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসি।

আফ্রিকান ইউনিয়নের ২৫তম শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে আজ শুক্রবার তার জোহানেসবার্গ সফরে যাওয়ার কথা ছিল।

তবে যুদ্ধাপরাধ ও মানবতাবিরোধী অপরাধে সিসিকে গ্রেপ্তারের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার মুসলিম আইনজীবীদের মামলার পর সফরের একদিন আগে তিনি তা বাতিল করে দেন বলে আনাদোলু এজেন্সিকে নিশ্চিত করেছে মিশরীয় প্রেসিডেন্টের প্রাসাদের একটি সূত্র।

এখন সিসির পরিবর্তে সম্মেলনে মিশরের প্রতিনিধিত্ব করবেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইব্রাহিম মেহলেব।

একজন আফ্রিকান কূটনীতিকও নাম প্রকাশ না করার শর্তে নিশ্চিত করেছেন যে সিসি শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিবেন না।

দক্ষিণ আফ্রিকার মুসলিম আইনজীবী সমিতি (এমএলএ) গত বুধবার এক আবেদনে আল-সিসি জোহানেসবার্গে পৌঁছাল তাকে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছে।

‘আমরা বিশ্বাস করি মিশরে (২০১৩ সালের) ক্যু-এর পর ভয়াবহ হত্যাযজ্ঞের মাধ্যমে সিসি যুদ্ধাপরাধ এবং মানবতাবিরোধী অপরাধ করেছেন,’ বুধবার আনাদোলু এজেন্সিকে বলছিলেন এমএলএর সদস্য ইউশা তাইয়ুব।

মিশরীয় স্বৈরশাসকের অপরাধের অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করে তার তদন্ত এবং বিচারের একটি ভালো সুযোগ দক্ষিণ আফ্রিকার সরকারের সামনে এসেছে বলে মত দেন তাইয়ুব।

‘আমাদের কাছে পর্যাপ্ত প্রমাণ রয়েছে যে সিসি যুদ্ধাপরাধ এবং মানবতাবিরোধী অপরাধ করেছেন। আমরা সেগুলো কর্তৃপক্ষের কাছে পেশ করেছি। আশা করি তারা ব্যবস্থা নেবে,’ বলছিলেন তাইয়ুব।

তাইয়ুব বলেন, সিসির শাসনে মিশরের মুসলিম ব্রাদারহুড বহু নেতাকর্মীকে হত্যা ও নির্যাতন করা হয়েছে।

তাইয়ুব বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকা রোম সংবিধিতে স্বাক্ষরকারী দেশ হিসেবে, যার ভিত্তিতে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি) প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, গণহত্যা, মানবতাবিরোধী অপরাধ বা যুদ্ধাপরাধে অভিযুক্ত যে কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারে।

দক্ষিণ আফ্রিকার মানবাধিকার সংগঠন মিডিয়া রিভিউ নেটওয়ার্কও সিসির গ্রেপ্তারের দাবি সমর্থন করেছে।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ৩ জুন জার্মান সফরকালেও সিসি অপদস্থ হন।

বার্লিনে জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেলের সঙ্গে সিসি যখন যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছিলেন তখন এক নারী সাংবাদিক সিসিকে খুনি বলে সম্বোধন করেন। এরপর সভাটি পণ্ড হয়ে যায়।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত