টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

গৃহবধূকে মাথা ন্যাড়া করে নির্যাতন

nirjaton-2চট্টগ্রাম, ০৭ জুন (সিটিজি টাইমস) ::চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে ৩ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে সাহিদা আক্তার সাখি (১৮) নামে এক গৃহবধূকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করার পর মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছে তার পাষণ্ড স্বামী। এ ঘটনায় এলাকাবাসী সেই স্বামীকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে দিয়েছে।

শনিবার রাতে উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের মুহুরীহাট বটতল এলাকার বাচা মিয়া সওদাগরবাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।

পাষন্ড স্বামীর নাম আব্দুর রহিম(৩০), তিনি পেশায় একজন সিএনজি চালক।

এ ঘটনায় নির্যাতিত গৃহবধূর বড় ভাইয়ের দায়ের করা মামলায় পুলিশ স্বামী আব্দুর রহিম ও শাশুড়ি নুর ছাপা বেগমকে (৪৫) গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছে। মামলার অপর আসামি মামা শ্বশুর শাহজাহান (৪০) পলাতক রয়েছেন।

কিন্তু গত শনিবার (৬ জুন) বিকেলে সাখির স্বামী, শাশুরী ও মামা শাশুর যৌতুকের জন্য আবারও তার উপর শারীরিক নির্যাতন চালায়। সাখি যাতে আর বাপের বাড়ি যেতে না পারে এবং লোকজনকে মুখ দেখাতে না পারে সেজন্য শাশুড়ি ও মামা শ্বশুরের সহযোগিতায় স্বামী আব্দুর রহিম গৃহবধূ সাখির চুল কেটে মাথা অর্ধেকটা ন্যাড়া করে দেয়। আত্মরক্ষার্থে সাখি পাশের ঘরে গিয়ে আশ্রয় নেন। এরপরও তারা রাতে তাকে ধরে এনে মাথা সম্পূর্ণ ন্যাড়া করে দেয়।

এলাকার লোকজনের কাছে খবর পেয়ে রাতে সাখির বাবার বাড়ির  লোকজন তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ঘটনা জানাজানি হলে স্থানীয়রা পাষণ্ড স্বামীকে ধরে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল  থেকে শাশুড়িকেও আটক করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে হাটহাজারী থানার ওসি মোহাম্মদ ইসমাঈল বলেন, ‘গৃহবধূকে নির্যাতনের ঘটনায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। এই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে স্বামী আব্দুর রহিম ও শাশুড়ি নুর ছাফাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।’

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত