টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

প্রচন্ড গরমে মিরসরাইয়ে তালের ডাবের জমজমাট বিকিকিনি

এম মাঈন উদ্দিন
মিরসরাই প্রতিনিধি 

mirsarai-ctg-taler-dab-photচট্টগ্রাম, ০৬ জুন (সিটিজি টাইমস) :: প্রচন্ড গরমে মানুষের জীবন উষ্ঠাগত। গরমের কারণে পিপাসা কাতর মানুষ পিপাসা মেঠাতে পান করছে তালের ডাব। এসুযোগে তালের ডাব বিক্রি করে অনেকে হয়েছেন স্বাবলম্বী। উপজেলার বিভিন্ন বাজারে তালের ডাব বিকিকিনির ধুম লেগেছে। প্রতিটি তালের ডাব আকার ভেদে ১০ থেকে ২৫ টাকা বিক্রি হচ্ছে। ক্রেতারা দামের কথা চিন্তা না করে পিপাসা মেঠাতে অনায়াসে পান করছে তালের ডাবের রসালো পানি।

জানা গেছে, প্রচন্ড গরমের কারণে মানুষ তালের ডাবের পানি পান করে একটু স্বস্তি পাচ্ছে। তাই এসুযোগে বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে ডাব। উপজেলার বারইয়ারহাট, করেরহাট, জোরারগঞ্জ, ঠাকুরদিঘী, মিঠাছড়া, বড়তাকিয়া, আবুরহাট, বড়দারোগাহাট, আবুতোরাব, ইছাখালী, বামনসুন্দর, মিরসরাই সদরে তালের ডাব বিক্রী হয় খুচরা ও পাইকারীতে। মৌসুমি ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন গ্রামে গিয়ে পুরো গাছের ডাব একসাথে (ঠিয়া) প্রথমে কিনেন। প্রতিটি গাছ ২-৩ হাজার টাকা দিয়ে কিনেন তারা। আর খুচরা ১টি ডাব বিক্রী করেন ১০-২৫ টাকা। পরবর্তীতে ডাবগুলো গাছ থেকে কেটে সংশ্লিষ্ট বড় বাজারে বিক্রী করতে নেয়। সেখান থেকে পাইকার, খুচরা ব্যবসায়ীরা ডাবগুলো বিক্রীর জন্য সারা দেশে ছড়িয়ে দেন। জানা গেছে পাইকাররা মিরসরাইয়ের তালের ডাব ঢাকা, ফেনী, চট্টগ্রাম সহ বিভিন্ন শহরে বিক্রীর জন্য নিয়ে যান।

মিরসরাই সদরে তালের ডাব বিক্রেতা মোমিন জানান, তিনি এবছর ৭টি তাল গাছের ডাব কিনেছেন। ৭টি গাছ কিনতে তার খরচ হয়েছে সাড়ে ৭ হাজার টাকা। ইত্যিমধ্যে তিনি ২টি গাছের ডাব আড়াই হাজার টাকা বিক্রি করেছেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন সব কয়টি গাছের ডাব বিক্রি করলে তার ৩ হাজার টাকা লাভ হবে।

ঠাকুরদিঘী বাজারে ডাব ব্যবসায়ী আলাউদ্দিন জানান, এবছর ডাবের চাহিদা আগের তুলনায় অনেক বেড়েছে। তিনি এবছর ১৫ হাজার টাকায় ১২টি তাল গাছের ডাব কিনেছেন। ইতিমধ্যে ৭টি গাছের ডাব প্রায় ১১ হাজার টাকা বিক্রি করেছেন। এছাড়া আরো ৫টি গাছে প্রায় ৮হাজার টাকার ডাব রয়েছে। প্রচন্ড গরমের কারণে এবছর অন্যান বছরের তুলানায় তালের ডাবের চাহিদা বেড়েছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত