টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

লোহাগাড়ায় বরযাত্রীসহ প্রতারক বর আটকে পড়ল কনের বাড়িতে

আরফাত হোছাইন বিপ্লব
লোহাগাড়া প্রতিনিধি

lohagara-ctg-6.6চট্টগ্রাম, ০৬ জুন (সিটিজি টাইমস) :: যৌতুক হিসেবে নগদ দিয়েছে একলাখ আশি হাজার টাকা। এর বাইরে বরযাত্রীভোজন, ফার্ণিচার ইত্যাদি বাবদ আরো ২ লাখ টাকা খরচ করে বিয়ের সব আয়োজন সম্পন্ন করে বরের হাতে মেয়ে তুলে দিবে এমন সময় খবর এলো বরের আগের একটি স্ত্রী রয়েছে। এ পরিস্থিতিতে বর দ্রুত স্থান ত্যাগ করতে উদ্যত হলে স্থানীয় লোকজন তাকে ধরে ফেলে। বরযাত্রী বহনকারী গাড়ী ও বরের মা সহ সবাই আটকে পড়ে কনের বাড়িতে। এ ঘটনা ঘটেছে লোহাগাড়া উপজেলার উত্তর কলাউজান এলাকায়। এ ঘটনায় এলাকার ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

জানাগেছে বরের আগের স্ত্রী একটি মামলাও করেছে তার বিরুদ্ধে। বরের নাম আব্দুর রহিম তিনি একই উপজেলার পদুয়া ইউনিয়নের আধাঁর মানিক গ্রামের আওয়াল পাড়ার মোহাম্মদ ইউনুচ মিয়ার পুত্র।

যোগাযোগ করা হলে পদুয়া ইউপি চেয়ারম্যান লিয়াকত আলী চৌধুরী জানান, আব্দুর রহিম এর আগেও পাশ্ববর্তি চরম্বা ইউনিয়ন থেকে একটি মেয়েকে বিয়ে করেছিলো। সেই মেয়েটিও আব্দুর রহিমের বিরুদ্ধে মামলা করেছিলো। কিন্তু কোন সুরাহা হওয়ার আগেই প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে আরেকটি মেয়েকে বিয়ে করতে গেলে এ ঘটনা ঘটে। আমি ছেলের বাবাকে ইউনিয়ন পরিষদে তলব করেছি। কনে পক্ষের লোকজনকেও আসতে বলেছি। আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের চেষ্টা করা হবে।

উত্তর কলাউজান গ্রামের বাসিন্দারা জানান, অনেক ঋণ ও সাহায্য সহযোগিতা নিয়ে বরের দাবিকৃত যৌতুক দিয়েছে মেয়ের দিনমজুর বাবা। কয়দিন আগে আক্বদ হলেও গতকাল শুক্রবার অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মেয়ে তুলে নেবার কথা। সেই অনুযায়ী বরযাত্রীভোজন সহ সব আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্নের পর তার আগের স্ত্রী আছে ও মামলা আছে খবর আসলে মেয়ের বাবা ভেঙে পড়েন। এ পরিস্থিতিতে সমাজের সর্দারগণসহ সবাই মিলে প্রতারকদের আটকে রেখেছি।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বর ও বরযাত্রী আটকে ছিলো কনের বাড়িতে।

 

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত