টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রাউজানের পাষন্ড স্বামী কর্তৃক জবাই করে স্ত্রী হত্যার চেষ্টা

এস.এম. ইউসুফ উদ্দিন
রাউজান প্রতিনিধি

map- raojanচট্টগ্রাম, ০৩ জুন (সিটিজি টাইমস) ::  চট্টগ্রামের রাউজানে স্ত্রীকে জবাই করে হত্যার চেষ্টা করেছে পাষন্ড স্বামী।

আজ ৩ জুন বুধবার সকালে উপজেলার কদলপুর ইউনিয়নের মানছি পাড়া গ্রামে এ লোমহর্ষক ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ঘাতক স্বামী পালাতক রয়েছে।

স্থানীয়রা গৃহবধুকে উদ্ধার করে প্রথমে নোয়াপাড়া কসমিক হাসপাতালে নিয়ে আসলেও পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় দ্রুত চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে গৃহবধুর নিকট এক আত্মীয়।

কদলপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোজাহিদ উদ্দিন চৌধুরী লিংকন বলেন, কদলপুর ইউনিয়নের মানছি পাড়া গ্রামের বশির আহমদের কাতার প্রবাসি ছেলে হাসান বাদল (৩৮) তার স্ত্রী জোসনা বেগমের (৩২) সাথে প্রায় সময় পারিবারিক কলহ নিয়ে জগড়ায় লিপ্ত থাকত। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার শালিশ বৈঠকও হয়।

গত ২ জুন মঙ্গলবার দিবাগত রাত থেকে তারা স্বামী স্ত্রী আবারো জগড়ায় লিপ্ত হয়। এর সুত্রে বুধবার সকাল ৮টার দিকে ঘরে স্ত্রীকে আটকিয়ে কৌশলে গলায় ছুরিকাঘাত করে হত্যার চেষ্টা করে। এসময় স্বামী বাদল ঘরের টিভি ভলিয়ম বড় করে দেয় যাতে স্ত্রীর চিৎকারের শব্দ কেউ শুনতে না পায়।

এসময় স্ত্রী জোসনা আহত অবস্থায় ঘরের পিছনের দরজা দিয়ে বের হয়ে এলাকার লোকজন ডেকে চিৎকার দিলে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। পরে ঘরে এলাকার লোকজন গিয়ে দেখতে পায় ঘাতক স্বামী পালিয়েছে।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে নিহতের এক নিকত্মীয় নাম প্রকাশ না করার র্শতে এ প্রতিবেদককে বলেন, জোসনা পশ্চিম গুজরা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল আমিনের কন্যা। তিনি আশঙ্কাজনক অবস্থায় এখন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছে। তার প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। এ পর্যন্ত তার শরীরে চার ব্যাগ রক্ত সঞ্চালন করা হয়েছে। চিকিৎসকরা বলেছেন এখনো শঙ্কামুক্ত নয় জোসনা। তার গলায় পরিকল্পিতভাবে ছুরি চালিয়েছে স্বামী হাসান বাদল।

তিনি আরো জানান, জোসনার সংসারে ৩ ছেলে সন্তান রয়েছে। বড় দুই ছেলে মিনার (১১), শরীফ (৮) চাঁন্দগাও আবাসিক এলাকার একটি হোস্টেলে লেখাপড়া করছে। ছোট ছেলে তাদের সাথেই বাসায় ছিল। জোসনার স্বামী কাতার প্রবাসী। গত ৩ মাস পূর্বে দেশে সে।

রাউজান থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, কদলপুরের মানছি পাড়ায় স্বামী কর্তৃক স্ত্রীকে গলায় ছুরি চালিয়ে স্ত্রী হত্যার চেষ্টার সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। তবে কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। স্বামী পালিয়েছে। এখানো এ ঘটনায় কেউ থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়নি।

মতামত