টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বাজেটের আকার বাড়ছে ১৯ শতাংশ

Budgetচট্টগ্রাম, ০২ জুন (সিটিজি টাইমস) : আগামী অর্থবছরের জন্য বাজেটের আকার এরই মধ্যে চূড়ান্ত করা হয়েছে। এবার ২.৯৭ ট্রিলিয়ন টাকার বাজেট পেশ করা হবে। যা বিদায়ী অর্থবছরের বাজেটের তুলনায় ১৯ শতাংশ বড়। গত অর্থবছরের বাজেটের আকার ছিল ২.৫ ট্রিলিয়ন টাকা।

আগামী বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রী এএমএ মুহিতের ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেট পেশ করার কথা রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য নতুন পে-স্কেল কার্যকর করতেই এবার বাজেটের আকার বড় হওয়ার প্রধান কারণ। নতুন পে-স্কেল অনুযায়ী, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মূল বেতন প্রায় ১০০ শতাংশ বৃদ্ধি করা হয়েছে। পে কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়ন করা হলে, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শুধু মূল বেতন দিতেই ২২০ বিলিয়ন টাকার বাড়তি জোগান দিতে হবে।

২.৯৭ ট্রিলিয়ন টাকার বাজেটের মধ্যে বার্ষিক উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৯ হাজার ৭০০ কোটি টাকা। বাজেট ঘাটতি মোট জাতীয় উৎপাদনের (জিডিপি) ৫ শতাংশেরও কম। বাজেটে মোট ঘাটতির পরিমাণ ৮ হাজার ৮০০ কোটি টাকা। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, মোট ঘাটতির মধ্যে বিদেশি সাহায্য থেকে তিন হাজার কোটি টাকা পূরণ করা হবে। বাকি অর্থ সংগ্রহ করা হবে বিভিন্ন ব্যাংক থেকে ঋণের নিয়ে। আগামী অর্থবছরে ২.১২ ট্রিলিয়ন টাকা রাজস্ব আয় হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সরকার আশা করছে, চলতি অর্থবছরে প্রবৃদ্ধির মাত্রা ৭.১ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পাবে। এছাড়া বিনিয়োগ বৃদ্ধি ও নতুন কর্মক্ষেত্রের সুযোগ তৈরি হবে।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, চলতি অর্থবছরের বাজেটে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের জন্য এক হাজার ৮৮৭ কোটি টাকা, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের জন্য এক হাজার ৮৩৭ কোটি টাকা এবং অর্থ মন্ত্রণালয়ের জন্য এক হাজার ৭১১ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।

এছাড়াও এবারের বাজেটে ছিটমহল এলাকার রাস্তাঘাটের উন্নয়নের জন্য বিশেষ বরাদ্দ রাখা হচ্ছে।

বাজেটকে আরও অংশগ্রহণমূলক করার জন্য এ সম্পর্কিত তথ্য পাওয়া যাবে অর্থ মন্ত্রণালয়ের (www.mof.gov.bd) ওয়েবসাইটে। কোনও ব্যক্তি বা সংস্থা ঘরে বসেই ওয়েবসাইটে গিয়ে বাজেট সম্পর্কে তার মতামত বা পরমার্শ দিতে পারে।

মতামত