টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

স্বামীসহ ৪ জনকে হত্যার দায় স্বীকার স্ত্রীর

চট্টগ্রাম, ৩১  মে (সিটিজি টাইমস) : : বান্দরবানে স্বামী-সন্তানসহ একই পরিবারের চারজনকে গলা কেটে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন নিহত কেয়ারটেকার মোহাম্মদ আমীনের তৃতীয় স্ত্রী নূর নাহার।

পুলিশের দাবি, চট্টগ্রামের পটিয়া থেকে শনিবার রাতে গ্রেপ্তার নূর নাহার রবিবার পুলিশের কাছে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন।

সদর থানার ওসি ইমতিয়াজ আহমেদ জানান, নিহত মোহাম্মদ আমীন তিনটি বিয়ে করেন। প্রথম স্ত্রীর মতো তৃতীয় স্ত্রীর সঙ্গেও বনিবনা হতো না তার। স্ত্রীর ভরণপোষণ নিয়ে শ্বশুরবাড়ির লোকদের সঙ্গে আমীনের বাকবিতণ্ডা এবং হামলার ঘটনাও ঘটে।

কিছুদিন আগে ঝগড়া চলাকালে আমীনের দায়ের কোপে শ্বশুরের একটি আঙ্গুল কেটে যায়। এ সময় স্ত্রীর হাতেও ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করেন তিনি। তৃতীয় স্ত্রীর শিশুপুত্র দুলুকে মায়ের কাছে না দিয়ে নিজের কাছে জোর করে রেখে দেন তিনি। পারিবারিক কলহের জেরেই ভাইদের সঙ্গে নিয়ে এ নৃশংস হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন নূর নাহার।

তিনি জানান, এ ঘটনায় শুক্রবার বিকেলে সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের হয়।

শনিবার রাতে চট্টগ্রামের পটিয়া থেকে নূর নাহারকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার দায় স্বীকার করেছেন। তাকে বিকেলে আদালতে নেওয়া হবে। বাকি আসামিদের গ্রেপ্তার অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান ওসি।

হত্যা মামলার বাদী নিহত বেগম বাহারের ছেলে শফি আলম বলেন, ‘আমার মামার (নিহত আমীন) তৃতীয় স্ত্রী নূর নাহার, তার ভাই আবদুল মোনাফ, নূরুল আমীন এবং আবদুশ শুক্কুর এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন। হত্যার আগের দিনও ঘটনাস্থল ক্যায়ামলং এলাকায় হত্যাকারীদের ঘোরাফেরা করতে দেখেছে স্থানীয়রা।’

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার রাতে বান্দরবান সদর উপজেলার কুহালং ইউনিয়ের ক্যায়ামলং এলাকায় আবদুল মোতালেব নামে এক ব্যক্তির বাগানবাড়িতে কেয়ারটেকারসহ একই পরিবারের চারজনকে গলা কেটে হত্যা করা হয়।

নিহতরা হলেন—বাগানের কেয়ারটেকার মোহাম্মদ আমীন (৪০), তার ছেলে জুনায়েদ (১২), বড় বোন বেগম বাহার (৪৫) এবং তার ছেলে ইলিয়াছ (৫)।

মতামত