টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

নগরীতে মাদ্রাসা ছাত্রী উদ্ধার, কথিত প্রেমিক গ্রেপ্তার

চট্টগ্রাম, ২৭ মে (সিটিজি টাইমস) ::  রাজধানীর তেজঁগাও থানায় দায়েরকৃত একটি মামলার অভিযোগ পেয়ে সুমাইয়া নামের এক মাদ্রাসাছাত্রীকে উদ্ধার করেছে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। একইসঙ্গে অপরণের অভিযোগে কথিত প্রেমিক মো. আশিক ভূঁইয়াকে (২৫) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সুমাইয়া সম্পর্কে আশিকের মায়ের চাচাত বোন।

মঙ্গলবার রাতে নগরীর একে খান এলাকায় পাঞ্জাবি লেইনের ভেতরে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গ্রেপ্তার আশিক আশিক নগরীর ইসলামিয়া কলেজের স্নাতক শ্রেণীর ছাত্র ও পুলিশ কনস্টেবল মাসাকিন ভূঁইয়ার ছেলে।

জানা গেছে, গত ১৮ মে সুমাইয়াকে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম নগরীতে এনে প্রথমে তাকে আগ্রাবাদ মুহুরিপাড়া এলাকায় দূর সম্পর্কের এক চাচির বাসায় রাখেন আশিক। এরপর হালিশহর থানার ছোটপুল এলাকায় ইসলাম হাজীর বিল্ডিংয়ে তাদের বাসায় স্বাভাবিকভাবে বসবাস করতে থাকেন আশিক। খবর পেয়ে সুমাইয়ার বড় ভাই চট্টগ্রাম নগরীতে এসে আশিকের বাসায় গেলে সুমাইয়াকে চাচির বাসা থেকে সরিয়ে নেয় আশিক। এরপর তারা দুই জন নগরীর একে খান এলাকায় একটি আবাসিক হোটেলে বসবাস শুরু করে।

এদিকে এ ঘটনায় ২০ মে তেজগাঁও থানায় অপহরণের অভিযোগ এনে মামলা করে সুমাইয়ার বাবা ও তেজগাঁও থানা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা হুমায়ুন কবির। এরপর আশিককে গ্রেপ্তার করে তরুণীকে উদ্ধার করতে পুলিশ সদর দপ্তর থেকে চট্টগ্রাম নগর পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়।

নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার এস এম তানভির আরাফাত  বলেন, ‘রাজধানীর তেজগাঁও এলাকার একটি মাদ্রাসার ছাত্রী সুমাইয়াকে অপহরণের অভিযোগে আশিকের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন তার বাবা হুমায়ুন কবির। মেয়েটি এখনও নাবালিকা। অপহরণের দায়ে অভিযুক্ত আশিকের অবস্থান চট্টগ্রামে হওয়ায় তাকে আমরা গ্রেপ্তার করেছি।’

মতামত