টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বদলে গেছে কর্ণফুলী পাড়ের জীবন

karচট্টগ্রাম, ১৭ মে (সিটিজি টাইমস) :: বদলে গেছে কর্ণফুলী নদীর দক্ষিণ পাড়। এক সময়ের নীরব এই জনপদ হয়ে উঠেছে শিল্প নগর।

নানা সমস্যার মাঝেও গেল ১৯ বছরে সরকারি-বেসরকারি শতাধিক শিল্প কারখানা গড়ে উঠেছে এই এলাকায়।

তাতে হয়েছে বহু মানুষের কর্মসংস্থান। বদলেছে জীবনমান। এখন এই এলাকাকে পরিকল্পিত একটি শিল্পাঞ্চল হিসেবে দেখতে চান উদ্যোক্তারা।

শিকলবাহা থেকে জুলধা। কর্ণফুলী নদীর তীর ঘেঁষে কয়েক কিলোমিটার জুড়ে যে এলাকাটি একসময় ছিল পরিত্যক্ত, সেটিই এখন উৎপাদনশীলতায় মুখর।

বিশাল এলাকাজুড়ে এখন যে শিল্পায়ন, তার সূচনা নব্বই দশকের মাঝামাঝি। তাতে প্রথম কারখানাটি ছিল ডায়মন্ড সিমেন্ট। এরপরই বদলাতে শুরু করে এখানকার চেহারা।

কর্ণফুলী নদী আর শাহ আমানত সেতুর সুবিধাকে কাজে লাগিয়ে একে একে গড়ে উঠে নানা ধরনের শিল্প কারখানা। গেল ১৯ বছরে যা ছাড়িয়েছে একশটি।

এসব কারখানায় ব্যাপক কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি ছাড়াও সরকারের তহবিলে যাচ্ছে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব।

যা হয়েছে তার সবটাই নিজেদের মতো করে। তাই এই এলাকাকে বিশেষ শিল্পাঞ্চল ঘোষণার ওপর জোর দিলেন উদ্যোক্তারা।

ভারী এবং হালকা-সব ধরনের শিল্প কারখানাই আছে কর্ণফুলীর দক্ষিণ পাড়ে।

বন্দর নগরীর দক্ষিণে বেসরকারি উদ্যোগে শিল্পায়নের যে অগ্রযাত্রা, তার শুরু হয়েছিল এই সিমেন্ট কারখানার হাত ধরে। পরবর্তীতে একে একে গড়ে ওঠা শিল্পপ্রতিষ্ঠান পাল্টে দিয়েছে গোটা এলাকার চিত্র। আর এ ধারা অব্যাহত থাকলে ভবিষ্যতে গ্রামীণ জনপদ কর্ণফুলী রূপান্তরিত হতে পারে শিল্পনগরীতে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত