টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রাম বন্দরের ১২৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ

bandarচট্টগ্রাম, ২৫ এপ্রিল (সিটিজি টাইমস): দেশের অর্থনীতির প্রাণকেন্দ্র দেশের প্রধান সমুদ্র বন্দর চট্টগাম বন্দরের ১২৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ শনিবার। বর্ণাঢ্য আয়োজন আর নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে বন্দর কর্তৃপক্ষ দিবসটি পালন করছে।

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সচিব ওমর ফারুক  জানান, শনিবার সকাল ৯টায় বন্দর ভবনে জাতীয় এবং বন্দরের পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানের সূচনা হয়েছে।

সকাল ৯টায় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের সঙ্গে সঙ্গে বন্দরে অবস্থানরত সব নৌযান ও জাহাজে একযোগে হুঁইসেল বাজানো হয় এক মিনিট ধরে। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে বন্দর কর্তৃপক্ষের মত বিনিময় এবং বন্দরের মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়েছে।

এ ছাড়া বন্দর হাসপাতালে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হবে। চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবানের আয়োজন করা হয়েছে আজ দুপুরে। রাতে অনুষ্ঠিত হবে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

চট্টগ্রাম বন্দরের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয় ১৮৮৭ সালে। মাত্র চারটি জেটি নিয়ে কাজ শুরু করে এই বন্দর। ১২৮ বছরে এর অবকাঠামো উন্নয়ন এবং পরিধি বেড়েছে। ২০টি জেটি বর্তমানে চট্টগ্রাম বন্দরের। দেশের নৌ বাণিজ্যের ৯০ শতাংশই হয় চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে। ওয়ান ইলেভেন পূর্ববর্তীতে শ্রমিক অস্থিরতায় কথায় কথায় বন্দর কার্যক্রম বন্ধ থাকত।

ওই সময়ে ব্যাপক সংস্কারের সুফল হিসেবে তারপর থেকে এ পর্যন্ত আর অচল হয়নি বন্দর। সব সময় চালু রয়েছে। তাছাড়া, জাহাজের গড় অবস্থানকালও হ্রাস পেয়েছে। বার্থ অপারেটর এবং শিপ হ্যান্ডলিং অপারেটরদের অবদানও এ ক্ষেত্রে প্রচুর বলে বন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

সেবা ও দক্ষতা বিবেচনায় বিশ্বের ১০০টি ব্যস্ততম সমুদ্র বন্দরের তালিকায় ২০০৯ সালে চট্টগ্রাম বন্দরের অবস্থান ছিল ৯৮ নম্বরে। ২০১৫ সালে চট্টগ্রাম বন্দর ১২ ধাপ এগিয়ে এর অবস্থান ৮৬ তে। দেশের চরম রাজনৈতি অস্থিতিশীল পরিস্থিতির মধ্যেও বিপুল পণ্য খালাসের শক্তিশালী দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে চট্টগ্রাম বন্দর।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত