টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

গাড়িবহর নিয়ে প্রচারণা চালাতে পারবেন না, খালেদা

Khaleda1চট্টগ্রাম, ২৫ এপ্রিল (সিটিজি টাইমস): এবার ভিন্ন কৌশলে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে নির্বাচনী প্রচারণা থেকে বিরত রাখার কৌশল নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

এর অংশ হিসেনে খালেদা জিয়া যাতে গাড়িবহর নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে না পারেন সে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

নির্বাচন কমিশন (ইসি) এ বিষয়ে নির্দেশনা দিয়ে ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে শুক্রবার রাতে চিঠি পাঠিয়েছে।

কমিশন বলেছে, আচরণবিধি অনুযায়ী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে খালেদা জিয়া নেতা-কর্মীসহ গাড়িবহর নিয়ে প্রচারণা চালাতে পারবেন না। মানুষের চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করে, এমন পথসভা করতে পারবেন না।

এ নির্দেশনা দিয়ে একটি চিঠি খালেদা জিয়ার কাছেও পাঠানো হবে বলে কমিশন সচিবালয়ের-সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান।

চিঠিতে আচরণবিধি মেনে প্রচারণা চালানোর অনুরোধ জানানো হবে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ এবং অন্য চার কমিশনার গতকাল কমিশনে না আসায় কমিশন সচিবালয়ের উপসচিব শামসুল আলম তাদের বাসায় গিয়ে এ-সংক্রান্ত নথি অনুমোদন করিয়ে নেন।

কমিশন সচিবালয়ের সচিব সিরাজুল ইসলাম বলেন, রিটার্নিং কর্মকর্তা এ-সংক্রান্ত চিঠি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের কাছে পাঠাবেন। তবে খালেদা জিয়া আচরণবিধি মেনে প্রচারণা চালালে কমিশন কোনো বাধা দেবে না।

এর আগে বৃহস্পতিবার আওয়ামীপন্থী সহস্র নাগরিক কমিটি খালেদা জিয়ার প্রচারণাকে আচরণবিধির লঙ্ঘন উল্লেখ করে কমিশনকে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানায়। এই অনুরোধের পরদিনই কমিশন বিধিনিষেধ আরোপ করল।

নিরাপত্তার কারণে খালেদা জিয়াকে প্রচারণায় নামতে হলে গাড়ি নিয়েই নামতে হবে। কমিশন এখন যে নির্দেশনা দিচ্ছে, তাতে খালেদা জিয়ার পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নেওয়া সম্ভব হবে না।

তবে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, খালেদা জিয়া বর্তমানে সরকারের কোনো নির্বাহী দায়িত্বে নেই। তাই তার নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিতে কোনো সমস্যা নেই। সাবেক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার সঙ্গে গাড়ি ও নিরাপত্তা বাহিনী থাকতেই পারে। কারণ, তার ওপর যেকোনো ধরনের হামলা হতে পারে। বিষয়টি যদি আচরণবিধির লঙ্ঘন হয়, তাহলে কমিশন এত দিন কিছু বলেনি কেন?

আচরণবিধিতে বলা আছে, নির্বাচনী প্রচারণায় পথসভা ও ঘরোয়াসভা ছাড়া কোনো ধরনের জনসভা ও শোভাযাত্রা করা যাবে না। যান চলাচল ও মানুষের চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করে, এমন সড়কে পথসভা বা মঞ্চ তৈরি করা যাবে না। মিছিল, যানবাহন সহকারে মিছিল বা কোনো ধরনের শোডাউন করা যাবে না।

নির্বাচন কমিশনার আবদুল মোবারক সাংবাদিকদের বলেছেন, খালেদা জিয়া প্রতিদিনই নির্বাচনী প্রচারণায় নেমে আচরণবিধি লঙ্ঘন করে যাচ্ছেন। তিনি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি বলে রিটার্নিং কর্মকর্তা বা ভ্রাম্যমাণ আদালত তাঁর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিতে পারছেন না। উল্টো দুর্বল প্রার্থীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে। তিনি যাতে আচরণবিধি লঙ্ঘন করে নির্বাচনী প্রচারণায় নামতে না পারেন, সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বলা হবে। এ ধরনের প্রচারণা থেকে বিরত থাকার জন্য খালেদা জিয়াকেও চিঠি দেওয়া হবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আ স ম হান্নান শাহ বলেন, প্রচারণায় নামতে হলে খালেদা জিয়াকে গাড়িবহর এবং নিরাপত্তা বাহিনী নিয়েই নামতে হবে। কমিশন যদি বলে যে গাড়িবহর নিয়ে প্রচারণা চালাতে পারবেন না, তাতে ধরে নেওয়া যায় তাদের অন্য মতলব আছে।

এর আগে ২২ এপ্রিল ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মিহির সারোয়ার মোর্শেদ বিএনপি-সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মির্জা আব্বাসকে সতর্ক করে চিঠি দেন। চিঠি বলা হয়, প্রচারণায় খালেদা জিয়া নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করছেন।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত