টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

নির্বাচনী ইশতেহার: জলাবদ্ধতা সম্পূর্ণ নিরসনসহ মনজুর ৫৪ দফা

maচট্টগ্রাম, ২৩ এপ্রিল (সিটিজি টাইমস):  বিএনপির সমর্থিত চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলনের মেয়র প্রার্থী এম মনজুর আলম স্বাস্থ্য, শিক্ষায় অগ্রাধিকার, বাস্তবতার নিরিখে নগর উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছেন। ইশতেহারে ৫৪ দফা উন্নয়ন মহাপরিকল্পনা তুলে ধরেন সাবেক মেয়র মনজুর আলম। নগরীর জলাবদ্ধতা সম্পূর্ণ নিরসনের পাশাপাশি স্বাস্থ্য, শিক্ষা, আবাসন খাতে অগ্রাধিকার দিয়েছেন তিনি।নগরীর হোল্ডিং ট্যাক্স না বাড়িয়ে আদায় প্রক্রিয়া সহজীকরণ, সিটি করপোরেশন পরিচালিত স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে ওয়াই-ফাই চালু, দিনমজুর ও পোশাক শ্রমিকদের আবাসন সুবিধা প্রদানের প্রতিশ্রুতি এসেছে তার ইশতেহারে।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় নগরীর রীমা কনভেনশন হলে ২০ দল সমর্থিত মেয়র প্রার্থী মনজুর আলম তার ইশতেহার দেন।

ঘোষণা মঞ্চে মনজুর উপস্থিত থাকলেও তার পক্ষে চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলনের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড.আবুল কালাম আযাদ ইশতেহার পাঠ করেন।

নগরীর জলাবদ্ধতা ৮০ শতাংশ নিরসন হয়েছে দাবি করে মনজুর আলমের ইশতেহারে উল্লেখ করা হয়, প্রভাবশালীদের কাছ থেকে খাল-নালা উদ্ধার করা যায়নি। ফলে ২০ শতাংশ নিরসন সম্ভব হয়নি। কর্ণফুলী নদীর ড্রেজিং না হওয়ায় জোয়ারের সময় হঠাৎ বৃষ্টি হলে কয়েকঘন্টার জলজট সৃষ্টি হয়। আগে যেখানে সামান্য বৃষ্টিতেই নগরীতে কেবল জলাবদ্ধতা নয়, কয়েকদিনের স্থায়ী বন্যার সৃষ্টি হতো, সেখানে এখন মাত্র কয়েকঘন্টার জলজট হয়।’

তবে এটাও নগরবাসীর কাছে কাম্য নয় উল্লেখ করে বলা হয়েছে, পুনরায় মেয়র নির্বাচিত হলে চট্টগ্রাম নগরীকে সম্পূর্ণ জলাবদ্ধতামুক্ত করার উদ্যোগ নেবেন। পাশাপাশি চট্টগ্রাম বন্দরের গৃহীত ড্রেজিং প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হবে। এছাড়া একনেকে অনুমোদন পাওয়া ২৯৭ কোটি টাকা খাল খনন প্রকল্পে বাস্তবায়নের কথা বলা হয়েছে ইশতেহারে।

মনজুর ইশতেহার ঘোষণা অনুষ্ঠানে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, নগর বিএনপির সভাপতি আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, সাবেক হুইপ সৈয়দ ওয়াহিদুল আলম, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম আকবর খন্দকার, বিএনপির উপ-কোষাধ্যক্ষ এস এম ফজলুল হক, নগর বিএনপির সহসভাপতি শামসুল আলম, কেন্দ্রিয় সদস্য মাহবুবুর রহমান শামীম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মতামত