টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মার্কেট প্লেসের তালিকায় এখন ‘মোবাইল ফোন টপ-অাপ’!

appচট্টগ্রাম, ১৫  এপ্রিল (সিটিজি টাইমস):: দেশেই এখন একের পর এক মার্কেট প্লেস গড়ে উঠছে, জনপ্রিয়তা পাচ্ছে এবং মানুষ সেসবে অভ্যস্ত হয়েও উঠছে। হালে এ তালিকায় যুক্ত হয়েছে মোবাইল ফোন টপ-অাপ (ব্যালেন্স বা টাকা রিচার্জ)। রাস্তার মোড়ে-মোড়ে বা দোকানপাটে নয়, একেবারে ভার্চুয়াল দুনিয়ায় এ বাজারের সরব উপস্থিতি। নীরবে গড়ে ওঠা মোবাইল টপ-অাপ মার্কেট প্লেস ক্রমেই তার পরিধি বাড়াচ্ছে। এরই মধ্যে তা ব্যবহারকারীদের অাস্থায় পরিণত হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টদের অভিমত।

ঘরের বাইরে না বেরিয়ে, ফোনে কাউকে অনুরোধ না করেও মোবাইলে ফোনে টাকা রিচার্জ করা যাচ্ছে। অনলাইনে গুটিকতক ব্যাংকের এটিএম কার্ড ব্যবহারের ক‌‌‌রে মোবাইলে রিচার্জ করার পাশাপাশি এখন কয়েকটি ওয়েবসাইটও বেশকিছুদিন ধরে এই সেবা দিচ্ছে। যদিও একাধিক মোবাইল ফোন অপারেটর অনলাইনে রিচার্জ সেবা চালু করেছে। মোবাইল ফিনান্সিয়াল সেবা ‘বিকাশ’ তার ওয়ালেটের মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের রিচার্জ সেবা দিচ্ছে। কারও বিকাশ অ্যাকাউন্ট থাকলেই যেকোনও মোবাইল ফোনে ট‌‌‌াকা (ব্যালেন্স) রিচার্জ করা যাচ্ছে।

এর পাশাপাশি কয়েকটি সাইট গড়ে উঠেছে, যেসব সাইট নিরবছিন্নভাবে রিচার্জ সেবা দিয়ে যাচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে ইপে ডট কম ডট বিডি, ইজি ডট কম ডট বিডি। অ্যালার্টপে অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে মোবাইলফোনে রিচার্জ করার সুবিধা দিচ্চে ওয়েবলি ডট কম। এ ছাড়া মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন ও রবি অনলাইনে মোবাইল রিচার্জ সুবিধা চালু করেছে। শিগগিরই চালু হচ্ছে অপটিকপে নামের একটি মার্কেট প্লেস। সাইটটি একই সঙ্গে সব মোবাইল ফোন অপারেটরে রিচার্জ সেবা চালু করবে বলে জানা গেছে।

ইপে’র মাধ্যমে সব মোবাইল ফোন রিচার্জের পাশাপাশি ইন্টারনেটের বিল পরিশোধ এবং বিমার প্রিমিয়াম দেওয়া যাচ্ছে। ইজিপের মাধ্যমেও মোবাইলে রিচার্জের পাশাপাশি দেওয়া যাচ্ছে ইন্টারনেট বিল। ডাচ বাংলা ব্যাংকের কার্ড দিয়েও মোবাইলে রিচার্জ করা যাচ্ছে।

শুধু দেশেই নয় এরকম মার্কেট প্লেস দেশের বাইরেও গড়ে উঠেছে। টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিঅারসি অনুমোদন দেওয়ার পরে (দেশের পাশাপাশি) দেশের বাইরের মার্কেট প্লেস থেকেও দেশের স্বজনদের মোবাইল ফোন টপ-অাপ করা যায়। এর ফলে নতুন পদ্ধতির মাধ্যমেও দেশে রেমিট্য‌‌‌ান্স ‌‌অাসছে।

দেশীয় তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ডিএনএস গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান হলো মার্কেট প্লেস ইপে ডট কম ডট বিডি। প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাফেল কবীর জানান, পুরনো বিতরণ (ডিস্ট্রিবিউশন) পদ্ধতি বা ব্যবস্থা অার থাকবে না। সেখানে জায়গা করে নিচ্ছে মার্কেট প্লেস। এটা ব্যয়-সাশ্রয়ী। তিনি অারও জানান, ক্রমেই এর বাজার বড় হচ্ছে। কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেন, দেশে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারী এখন মোট জনসংখ্যার দুই তৃতীয়াংশ। এ সংখ্যা অারও বাড়বে। ফলে অাগামী দিনে এই মার্কেটটি সম্ভাবনা তৈরি করছে।

রাফেল কবীর বলেন, দেশে প্রযুক্তির অনেক অগ্রগতি হয়েছে। মানুষ এখন ঘরে বা অফিসে বসেই তার মোবাইলে ব্যালেন্স রিচার্জ করতে পারছে। তিনি বলেন, দেশের মানুষের শিক্ষার লেভেল যত বাড়বে তত এ ধরনের ‘ইনোভেটিভ’ কিছু অাসবে। তিনি জানান, এই মার্কেটটি নিয়ে কেউ কেউ টপ-অাপ অ্যাপসও বানিয়ে ফেলেছে। যা এই খাতের জন্য সুখের বার্তা বহন করছে বলে তিনি মনে করেন।-বাংলা ট্রিবিউন

মতামত