টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বোয়ালখালীতে গৃহবধূ খুন, আটক ৩

চট্টগ্রাম, ১৫  এপ্রিল (সিটিজি টাইমস):: বোয়ালখালী উপজেলার শ্রীপুর গ্রামে শ্বাসরোধ করে প্রিয়াংকা দে (২৬) নামে এক গৃহবধূকে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রিয়াংকা সীতাকুণ্ড উপজেলার মধ্যম মহাদেবপুর গ্রামের মৃত রতন দে’র মেয়ে। চার বছর আগে বোয়ালখালীর শ্রীপুর গ্রামের দয়ালহরি ঘোষ ও ঝর্ণা রাণী ঘোষের ছেলে লিটন ঘোষের সঙ্গে তার বিয়ে হয়।

মঙ্গলবার রাতে এ ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে স্বামী ও শ্বশুর-শ্বাশুরিকে গ্রেপ্তার করেছে।

প্রিয়াংকার মামা সুমন চৌধ‍ুরী  জানান, লিটন বিদেশে থাকত। সম্প্রতি দেশে ফিরে সে নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়ে। প্রতিদিন লিটন তার স্ত্রীকে মারধর করত। শ্বশুর-শ্বাশুরি ও দেবর মিলে তাকে নির্যাতন করত। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শ্বশুর ফোন করে জানায়, প্রিয়াংকা স্ট্রোক করেছে। তাকে বাড়ি থেকে দ্রুত নগরীতে হলি হেলথ ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। খবর পেয়ে সুমন ওই ক্লিনিকে গিয়ে দেখতে পান, প্রিয়াংকা মারা গেছে। সুমনকে দেখে প্রিয়াংকার দেবর দ্রুত ক্লিনিক থেকে চলে গেলে তার সন্দেহ হয়। সুমন গলায় কালে‍া চিহ্ন দেখতে পান। এতে তার সন্দেহ আরও ঘনীভূত হলে তিনি ক্লিনিকে থাকা স্বামী ও শ্বশুর-শ্বাশুরিকে আটকে রাখেন। এরপর পাঁচলাইশ থানায় খবর দেন।

পাঁচলাইশ থানা পুলিশ বোয়ালখালীর সঙ্গে যোগাযোগ করে রাতে তাদের আটক করে।

বোয়ালখালী থানার ওসি মো.শামসুল ইসলাম  বলেন, হত্যাকাণ্ডের খবর পেয়ে আমরা পাঁচলাইশ থানা পুলিশের মাধ্যমে তিনজনকে আটক করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

প্রিয়াংকার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত