টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

তারকাদের তাসের ঘর

un_61082_0চট্টগ্রাম, ০৭ এপ্রিল (সিটিজি টাইমস):: তাসের ঘরের মতো তারকাদের সংসার। আজ আছে তো কাল নেই। কেন এমনটা হয়। কী তার কারণ। নানাজন বলেন নানা কথা। কিন্তু প্রিয় তারকার ঘর ভাঙার শব্দ ভক্তের হৃদয়ে ঠিকই দাগ কেটে যায়।

সম্প্রতি ঘর ভাঙছে হৃদয়-সুজানার। হালেই ঘর ভেঙেছে অহনা, তিন্নি-হিল্লোল, মিমোসহ আরো অনেকের। এসব ঘটনার পর অনেক তারকা তো রীতিমতো হারিয়েই যায়। যেমনটি হারিয়ে গেছে জনপ্রিয় অভিনেত্রী তিন্নি।তারকাদের তাসের ঘর

সাড়ে তিন বছর প্রেম করার পর গত বছরের ১ আগস্ট মডেল সুজানাকে বিয়ে করেন গায়ক ও সংগীত পরিচালক হৃদয় খান। এটি ছিল তাদের দুজনেরই দ্বিতীয় বিয়ে। মাস তিনেক যেতে না যেতেই দাম্পত্য জীবনে টানাপোড়েন শুরু হয়। অবশেষে গতকাল সোমবার বিকেল চারটায় রাজধানীর মণিপুরিপাড়ার একটি কাজি অফিসে গিয়ে তালাকনামায় স্বাক্ষর করেছেন হৃদয় খান। অন্যদিকে সুজানা বিকেল পাঁচটায় তালাকনামায় স্বাক্ষর করেন।

গত বছরের শেষে এসে ঘর ভাঙার খবর শুনতে হলো মোনালিসার। এর আগে ঘর ভেঙেছে অপি করিমেরও।

দুদিন পর পরই কোনো না কোনো তারকার প্রেম বা বিয়ে বিচ্ছেদের খবর চাউর হয়ে ওঠে মিডিয়ায়।
সংসার যার যার ব্যক্তিগত ব্যাপার। তবে তারকাদের সংসার জীবন নিয়ে পাঠকদের রয়েছে তুমুল আগ্রহ। কারণ অনেকেই মনে করেন তাদের সংসারের কোনো শক্ত ভিত্তি নেই। না হলে দীর্ঘদিন লুকিয়ে প্রেম করার পর দেখা যায় কোনো তারকা জুটি বিয়ে করেছে, আবার কিছুদিন পরেই যেভাবে তাদের বিয়ের খবর শোনা গিয়েছিল ঠিক সেভাবেই হুট করেই তাদের বিয়ে ভাঙার গল্প শোনা যায়।
পুরনো কাসুন্দি ঘাঁটলে একাত্তরের নিখোঁজ বরেণ্য চলচ্চিত্র পরিচালক জহির রায়হান সুমিতা দেবী থেকে শুরু করা যায়। তাদের ডিভোর্স হয়েছিল নায়িকা সুচন্দাকে জহির রায়হান বিয়ে করেছিলেন বলে।

নায়ক আলমগীর ও গীতিকার খোশনুরের ডিভোর্স হয় বরেণ্য শিল্পী রুনা লায়লার সঙ্গে আলমগীরের প্রেমের কারণে। একই কারণে সংসার ভেঙেছিল সংগীত পরিচালক আলাউদ্দিন আলী ও শিল্পী সালমা আলীরও।তারকাদের তাসের ঘর

জনপ্রিয় অভিনেতা হুমায়ুন ফরিদী ও অভিনেত্রী সুবর্ণা মোস্তফা জুটিকে দুই প্রান্তের দুই বাসিন্দা হিসেবে কখনো দেখা যাবে ভাবেননি কেউ। কিন্তু হঠাৎ একদিন পত্রিকার শিরোনাম ফরিদীকে ডিভোর্স দিয়ে নাট্যব্যক্তিত্ব বদরুল আনাম সৌদকে বিয়ে করেছেন সুবর্ণা। অনেক পাঠক সেদিন এই জুটির ঘর ভাঙার শব্দে দুঃখিত হয়েছিলেন। দুঃখ পাবেনই বা না কেন, তারকা জুটির ঘরভাঙা বলে কথা। কারণ হিসেবে সুবর্ণা বলেছিলেন ডাক্তারের বারণ সত্ত্বেও ফরিদীর অতিরিক্ত মদ ও ধূমপান।

আরেক জনপ্রিয় অভিনেত্রী শমী কায়সার ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন ভিনদেশি টিভি অনুষ্ঠান ও বিজ্ঞাপন নির্মাতা রিংগোকে। দেশের অনেক সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বের বারণ সত্ত্বেও রিংগোকে নিজের করে নিয়েছিলেন শমী। বিয়ের সময়ই অনেকে বলেছিলেন এই বিয়ে বেশি দিন টিকবে না। অনেকের সেই অনুমানকে সত্যে পরিণত করতে বেশি দিন সময় নেননি তারা। এক দুর্ঘটনায় রিংগো আহত হলে চিকিৎসার জন্য দিল্লিতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই শমী জানতে পারেন মিথ্যা বলে বিয়ে করেছিলেন রিংগো। আগের স্ত্রীকে তালাক দেননি। শমী এবার পরিবারের কথাই শুনলেন। তালাক দিলেন রিংগোকে।

প্রেম করে বিয়ে করেছিলেন নাট্যনির্মাতা গাজী রাকায়েত ও অভিনেত্রী আফসানা মিমিও। মতের অমিলের কারণে ভেঙে যায় তাদের সংসার।

নাট্যনির্মাতা সোহেল আরমান ও অভিনেত্রী তারিন প্রেম করে বিয়ে করেছিলেন হঠাৎ করেই। একমাস না পেরুতেই তাদের সংসারও যায় ভেঙে। কারণ হিসেবে তারিন জানিয়েছিলেন, অ্যাডজাস্টমেন্ট না হওয়ার বিষয়টি।

জনপ্রিয় শিল্পী সুরকার ও সংগীত পরিচালক নকীব খান বিয়ে করেছিলেন সংগীতশিল্পী সামিনা চৌধুরীকে। মতের অমিল হওয়ায় সামিনা চৌধুরী ডিভোর্স দেন নকীব খানকে; বিয়ে করেন অনুষ্ঠান নির্মাতা এজাজ খান স্বপনকে।তারকাদের তাসের ঘর

আরেক জনপ্রিয় শিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ বিয়ে করেছিলেন মডেল অভিনেত্রী রুনাকে। ভেঙে যায় তাদেরও সংসার। রুনা বেছে নেন প্রবাস জীবন।

বাংলা চলচ্চিত্রের অসম্ভব জনপ্রিয় চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন ও জনপ্রিয় নায়িকা দিতি ভালোবসে বিয়ে করেছিলেন একে অপরকে। সন্তানদের কথা চিন্তা করেই নাকি তারা একে অপরের হয়েছিলেন। কিন্তু বেশি দিন টিকেনি এ সংসার। যে সন্তানদের কথা চিন্তা করে তারা এক হয়েছিলেন সেই সন্তানরা একে অপরকে এক পরিবারের ভাবতে পারেননি। পিতা মাতারা আর কি করবেন।

নাট্যনির্মাতা এজাজ মুন্না ও অভিনেত্রী তাজিন আহমেদ বিয়ে করেছিলেন প্রেম করে। অনেক দিন টিকেছিল তাদের সংসার। কিন্তু মানসিক অ্যাডজাস্টমেন্টের অভাবই তাদের আলাদা করে দেয়। তাজিন ডিভোর্স দেন মুন্নাকে। মুন্না বিয়ে করেন অভিনেত্রী মমকে। তাদেরও সংসারে ভাঙার শব্দ শোনা যাচ্ছে আলাদা থাকছেন মম। ওদিকে পরিচালক শিহাব শাহীনকে নিয়ে মমর প্রেমের গুজব এখন টক অব দ্য কান্ট্রি।তারকাদের তাসের ঘর

প্রেম করে বিয়ে করেছিলেন ব্যান্ড তারকা জেমস এবং রথি। তাদের সংসার ভাঙ্গে জেমস এর কারণেই। জেমস মজে যান প্রবাসী এক তরুণীর প্রেমে। সেই তরুনী জেমসকে বিয়ে করতে চলে আসেন ঢাকায়। ফলে সংসার ভাঙ্গে জেমস-রথির।

জনপ্রিয় শিল্পী রবি চৌধুরী ও ডলি সায়ন্তনীও প্রেম করে বিয়ে করেন। রবি চৌধুরীর পরকীয়ার কারণে ডলি ডিভোর্স দেন রবিকে। সম্প্রতি রবি তৃতীয় বিয়ে করেছেন।

তারকাদের সংসার ভাঙ্গার এরকম আরো অনেক উদাহরণ আছে। ব্যান্ড তারকা পার্থ বড়ুয়া এবং অভিনেত্রী শ্রাবন্তী, শিল্পী, সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক হাবীব ও রেডিও জকি লুবায়না। উপস্থাপক আনজাম মাসুদ-মডেল অভিনেত্রী রোমানা। অভিনেতা শাকিল খান অভিনেত্রী জনা কিংবা বিজ্ঞাপন নির্মাতা অমিতাভ রেজা এবং মডেল অভিনেত্রী জেনি। সংগীতশিল্পী প্রিতম ও সংবাদপাঠিকা সঙ্গীতা।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত