টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

শেঠের ১৪ মাসে আয় বেড়েছে সাড়ে ৩ গুণ

jpচট্টগ্রাম, ০২ এপ্রিল (সিটিজি টাইমস)::  জাতীয় পার্টি (জাপা) সমর্থিত এই প্রার্থী ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের সময় বার্ষিক আয় দেখিয়েছিলেন ২ লাখ ৮৫ হাজার টাকার। এবার মেয়র পদে নির্বাচনের সময় তাঁর আয় দেখানো হয়েছে সাড়ে ১০ লাখ টাকা।

সেই হিসেবে সোলায়মান আলম শেঠ চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী সোলায়মান আলম শেঠের আয় ১৪ মাসে সাড়ে তিন গুণ বেড়েছে।

আয় বৃদ্ধির বিষয়ে জানতে চাইলে সোলায়মান শেঠ বলেন, ‘সবকিছুর দাম বাড়ছে। আয়ও বাড়ছে। তাই গতবারের চেয়ে আমার আয় বেড়েছে। বাড়ি ভাড়া পাই। কোনো অসত্য তথ্য দিইনি।’তবে আয় বাড়লেও সোলায়মানের সম্পদের কোনো পরিবর্তন হয়নি। তাঁর নগদ রয়েছে ১০ লাখ টাকা। এ ছাড়া ২০ হাজার টাকার আসবাব আছে। তাঁর স্ত্রীর নামে অস্থাবর সম্পদ রয়েছে ৬০ হাজার টাকার।

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সোলায়মান আলম খাগড়াছড়ি আসন থেকে প্রার্থী হয়েছিলেন। তখন তিনি হলফনামায় ব্যবসা ছাড়া অন্য কোনো খাত থেকে আয় দেখাননি।

নির্বাচনে সোলায়মানসহ ১৩ জন মেয়র পদপ্রার্থীর মধ্যে ১২ জনই ব্যবসায়ী। কেবল বিএনএফের আরিফ মঈনুদ্দীন পেশা হিসেবে কিছু উল্লেখ করেননি। রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে সবার জমা দেওয়া হলফনামা থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

এইচএসসি পাস সোলায়মানের ব্যবসা থেকে বছরে আয় দেখিয়েছেন ২ লাখ ৪০ হাজার টাকার। এ ছাড়া দোকান ও বাড়ি ভাড়াবাবদ তাঁর আয় ৩ লাখ ৩৭ হাজার টাকা। অন্যান্য খাতে আয় ৪ লাখ ৬৭ হাজার ৫০০ টাকা। সব মিলিয়ে তাঁর বার্ষিক আয় ১০ লাখ ৫০ হাজার টাকা।

মতামত